বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১, ২০২২

অন্ধকারাচ্ছনে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে পঙ্গু আশাশুনির রাকিব!

জিএম আল ফারুক, আশাশুনি :

আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগরে ঘরের গা ঘেঁষে টানা পল্লী বিদ্যুতের লাইনে বিদ্যুতায়িত হয়ে অঙ্গহানীর শিকার ও দীর্ঘদিন হাসপাতালে মরণাপন্ন হয়ে পড়ে থাকা শিশু রাকিবুজ্জামানের জীবন এখন অন্ধকারাচ্ছন্ন। সে নিজে চলতে পারেনা, অন্যের উপর ভর করে তাকে চলতে হয়। সে পরিবারের জন্য বোঝা হয়ে পড়েছে। এনিয়ে মাহামান্য হাইকোর্টে মামলা চলমান।

প্রতাপনগর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক ঢালীর বসতবাড়ির উপর দিয়ে নকশা বহির্ভূতভাবে বিদ্যুতের লাইন গেছে। লাইন পরিবর্তন ও তার দ্বিতল বাসবভনের ওপর দিয়ে ক্যাপ ও কভারবিহীন বিদ্যুৎ লাইনে সংযোগ না দিতে সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার বরাবর আবেদনও করেছিলেন আব্দুর রাজ্জাক। কিন্তু কোন কাজ হয়নি। গত বছরের ৯ মে সেই পোস্ট থেকে অন্য পোস্টে নেয়া ক্যাপ ও কভারবিহীন তারে বিদ্যুতায়িত হয়ে শিশু রাকিবুজ্জামানের শরীর ঝলসে যায়। মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসাতপালে ভর্তির পর সংশ্লিষ্ট ডাক্তার তাকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে রেফার্ড করেন। সেখানে চিকিংসাধীন অবস্থায় ১২ মে রাকিবুজ্জামানের ডান হাতের বোগল থেকে ও ডান পায়ের হাটু থেকে নিচের অংশ কেটে ফেলা হয়। এ ঘটনার ক্ষতিপূরণ চেয়ে ২৫ মে আব্দুর রাজ্জাক ঢালী সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি ক্ষতিপূরণসহ যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য আবেদন করেন। কিন্তু বিবাদীরা ক্ষতিপূরণ দেননি এবং অন্য কোনো ব্যবস্থাও নেননি। বরং তার বাড়ির বিদ্যুৎ লাইন কেটে দিয়ে চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্থ ও বিপদাপন্ন পরিবারটিকে অন্ধকার ও সুযোগ সুবিধা বঞ্চিত করা হয়। আব্দুর রাজ্জাক ঢালী মহামান্য হাইকোর্টে রিট করেন। পরবর্তীতে বিদ্যুৎ সংযোগ পুনস্থাপন করা হয় এবং ঘরের পিছনের তারে কভার দেয়া ও সামান্য টেনে দূরে নেয়া হয়। কিন্তু ঘরের একেবারেই মুখের উপরের খুঁটিও সরানো হয়নি। হয়তো এক সময় মামলার রায় হবে, পরিবারটি আর্থিক ক্ষতিপূরণ পাবে। কিন্তু ফিরে পাবে কি? তাদের আদরের সন্তানের হাত-পা। রাকিবুজ্জামান প্রতাপনগর এবিএস ফাযিল মাদ্রাসার ২য় শ্রেণিতে পড়ছে। তার রোল নং- ১। কিন্তু না সে নিজে চলতে পারে, না সে ডান হাত ব্যবহার করতে পারে। তাই পরিবারের অন্য কাউকে তাকে মাদ্রাসায় নেয়া থেকে শুরু করে, দৈনন্দিন তার সকল কাজে সহযোগি হিসাবে থাকতে হয়। অদম্য ইচ্ছাশক্তিতে রাকিব বাম হাত দিয়ে সাবলিল ভাবে লিখতে শিখেছে। পড়তে, মুখস্ত করতে ও মনে রাখার অভ্যাস আস্তে আস্তে তার মধ্যে প্রখর হচ্ছে। কারো জীবন প্রদীপ যেন এভাবে অসহায় পরিস্থিতির মুখে ঠেলে না দেয়া হয়। অপরাধীদের যেন প্রাপ্য শাস্তি হয় এমনটাই প্রত্যাশা রাকিবুজ্জামানের পরিবার ও এলাকাবাসীর।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

১৬ বছর পর শেষ ষোলোয় অস্ট্রেলিয়া

ক্রীড়া ডেস্ক : তিউনিসিয়া ফ্রান্সের বিপক্ষে যতক্ষণ গোল পায়নি, অস্ট্রেলিয়ার সমীকরণ ততক্ষণ সহজই ছিল। ড্র...

ফ্রান্সকে হারিয়ে দিলো তিউনেশিয়া

ক্রীড়া ডেস্ক : শেষ ষোলোয় আগেই উঠে গিয়েছে ফ্রান্স। সে কারণেই কিনা তিউনেশিয়ার বিরুদ্ধে গ্রুপ...

সেমি-ফাইনালে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল মহারণ নাকি মেসি-রোনালদো দ্বৈরথ?

ক্রীড়া ডেস্ক: প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের বিপক্ষে হেরে বিপাকেই পড়ে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা। এক হারেই...

সুন্দরী প্রতিযোগিতার বিজয়ী রাহার আয়োজকদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

বিনোদন ডেস্ক: থাইল্যান্ড পাঠানোর নাম করে তার দেওয়া ৬ লাখ টাকা আয়োজকরা আত্মসাৎ করেছেন...

মেসিকে হুমকি দেওয়া মেক্সিকান বক্সারকে পেটাবেন আর্জেন্টাইন ফাইটার

ক্রীড়া ডেস্ক: আর্জেন্টাইন ফাইটার ফ্রাঙ্কো তেনাগ্লিয়াকে তেমন খ্যাতিমান কেউ নন। লাইটওয়েট শ্রেণিতে লড়াই করেন...

আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ থেকে বাদ পড়লে ব্রাজিলকে সমর্থন দেবেন স্কালোনি!

ক্রীড়া ডেস্ক: আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্কালোনি বলেছেন, আর্জেন্টিনা কাতার বিশ্বকাপ থেকে বাদ পড়ে গেলে...