বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১, ২০২২

আইনের যথাযথ প্রয়োগ হওয়া উচিত

আইন আছে প্রয়োগ নেই। দেশের স্বার্থে, মানুষের স্বার্থে, উন্নয়নের স্বার্থে আইন প্রণীত হয়। কিন্তু সেই আইনের যদি প্রয়োগ না হয় তা হলে আইন প্রণয়ন করে লাভটা হলো কি? আইন আছে গ্রামীণ সড়কে ভারী যানবাহন চলতে পারবে না, কিন্তু চলছে এবং কেউ প্রতিবাদ করলে উল্টো যারা চালাচ্ছে তারা গলার স্বর উচ্চে তুলে বলছে রাস্তা তো যানবাহন চলার জন্য, গাড়ি চলবে।

এই আইন ভাঙার কারণে যে কি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হচ্ছে তা গণমাধ্যমে প্রতিবেদনে ফুটে উঠেছে। ইটভাটার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে ট্রাকভর্তি মাটি বহনের সময় পিচের রাস্তায় ব্যাপকভাবে পড়ছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই রাস্তা কাদায় ভরে যায়। চলাচলে দারুণ সমস্যা সৃষ্টি হয়। ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যানবাহনগুলো। এ অবস্থার জন্য অনেক দুর্ঘটনাও ঘটছে।

যারা ট্রাক্টর চালাচ্ছে তারা এলাকার দাপটধারী অতিশয় ধুরন্দর। কেউ যদি আইনের বলে প্রতিবাদ করতে যায় তাহলে তার সারা জীবনের মতো প্রতিবাদের ভাষা কেড়ে নেবে ওই মহলটি। প্রশাসন কিছু করবে?
শুধু এ অভিযোগ তুলে কি হবে? কোনো জায়গায় তো আইনের প্রয়োগ হচ্ছে না। এই যেমন আইন আছে জনবহুল স্থানে প্রকাশ্যে ধুমপান করা যাবে না। কিন্তু ধুমপায়ীরা তা মানছে না। বলছে, আমার ব্যক্তিগত ইচ্ছায় বাধা দেয়ার তুমি কে? আইন আছে ফিটনেস বিহীন গাড়ি রাস্তায় চলতে পারবে না। কিন্তু চলছে। চালকরা বলছে, তোমার পছন্দ না হয় গাড়িতে উঠো না। বাধা দেবার তুমি কে? আইন আছে আবাদি জমির টপ সয়েল কাটা যাবে না। কিন্তু বিরামহীনভাবে কাটা হচ্ছে। কেউ কিছু বললে বলা হচ্ছে, আমার জমি থেকে আমি কাটছি, এতে বাধা দেবে কেন? আইন আছে লোকালয় থেকে তিন কিলোমিটার দূরে ইটভাটা করতে হবে। কিন্তু বাড়ির আঙিনায় বসানো হচ্ছে এই ভাটা। দাপটধারী ভাটা মালিকদের এ কাজের প্রতিবাদ করলে জীবন হারাতে হতে পারে। আইন আছে সিনিয়র নাগারিকদের মর্যাদা দিতে হবে। কিন্তু এ আইনটি মানার চেতনা সম্পন্ন মানুষের বড্ড অভাব যে দেশে। আইন আছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গাইড বা নোট বই পড়ানো যাবে না। কিন্তু বিপক্ষে কেউ কিছু বললে পাল্টা বলা হচ্ছে তা হলে তুমি এসে পড়িয়ে দিয়ে যাও। আইন আছে বিনা টিকিটে ট্রেনে ওঠা দ-নীয় অপরাধ। কিন্তু বিনা টিকিটের যাত্রী টিটির কাছে আদরের পাত্র তা কি কেউ লক্ষ্য করছে? আইন আছে জনসাধারণের চলাচল বিঘিœত করে রাস্তার ওপর সভা সমাবেশ করা যাবে না। কিন্তু তা হচ্ছে। কার ঘাড়ের ওপর কটা মাথা আছে যে এর প্রতিবাদ করবে? আইন আছে নদী লিজ নেয়া যাবে, কিন্তু ¯্রােতধারা বন্ধ করা যাবে না। কিন্তু লিজ নেয়া কোন নদীর বুক দিয়ে ¯্রােত চলতে পারে? আইন আছে সড়কে চাঁদাবাজি চলতে পারবে না। কিন্তু প্রশাসনের নাকের ডগায় চেকপোস্ট বসিয়ে দিব্বি সেই কাজটা চলছে, যারা বলার তারা কিছুই বলছে না। জনগণ কিছু বলতে গেলে অরাজকতা সৃষ্টি হবে। সেই অরাজকতা ঠেকাতে কিন্তু তারা বড্ড তৎপর। ওই যে দু’হাজার টাকায় তুষ্ট হয়ে শার্শার রাস্তায় বেআইনী গাড়ি চলার অলিখিত অনুমোদনের ঘটনার অভিজ্ঞতা।
ছোট ছোট বালুকণা মিলেই কিন্তু বিশাল মরুভূমির সৃষ্টি। ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র পানি মিলেই সৃষ্টি মহাসাগর। আইন না মানার উল্লেখিত বিষয়গুলো হতে পারে ছোট বিষয়। কিন্তু আমরা বলবো আসলে ছোট বিষয় নয়। কারণ ছোট বিষয় হলে আইন প্রণয়ন হতো না। ছোট হোক বড় হোক জনস্বার্থে বিষয়গুলোর দিকে নজর দেয়া সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের একান্ত জরুরি। আইন অমান্য করে আমরা কোনোক্রমেই নিজেদেরকে সভ্য জাতি দাবি করতে পারিনে। আমরা আশা করবো জাতীয় জীবনের সকল ক্ষেত্রে আইন প্রয়োগ হোক। আমরা আইন মান্যকারী সভ্য জাতি হিসেবে মাথা উঁচু করে দাঁড়াই।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

নকআউটে আর্জেন্টিনার সামনে অস্ট্রেলিয়া

ক্রীড়া ডেস্ক : পোল্যান্ডকে ২-০ গোলে হারিয়ে সি গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ষোলো নিশ্চিত...

সৌদি আরবকে হারিয়েও নক আউটে যেতে পারলো না মেক্সিকো

ক্রীড়া ডেস্ক : আর্জেন্টিনা যখন পোল্যান্ডের বিপক্ষে লড়ছিল। ঠিক একই সময় লুসাইলের আইকনিক স্টেডিয়ামে মেক্সিকোর...

দুই তরুণের গোলে নকআউটে আর্জেন্টিনা

ক্রীড়া ডেস্ক : হারলেই বিদায়, ম্যাচ শুরু আগে ভর করেছিল নানা শঙ্কা। মেসির পেনাল্টি মিসের...

১৬ বছর পর শেষ ষোলোয় অস্ট্রেলিয়া

ক্রীড়া ডেস্ক : তিউনিসিয়া ফ্রান্সের বিপক্ষে যতক্ষণ গোল পায়নি, অস্ট্রেলিয়ার সমীকরণ ততক্ষণ সহজই ছিল। ড্র...

ফ্রান্সকে হারিয়ে দিলো তিউনেশিয়া

ক্রীড়া ডেস্ক : শেষ ষোলোয় আগেই উঠে গিয়েছে ফ্রান্স। সে কারণেই কিনা তিউনেশিয়ার বিরুদ্ধে গ্রুপ...

সেমি-ফাইনালে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল মহারণ নাকি মেসি-রোনালদো দ্বৈরথ?

ক্রীড়া ডেস্ক: প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের বিপক্ষে হেরে বিপাকেই পড়ে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা। এক হারেই...