আজকের ছবি : ১১ এপ্রিল ২০২২

গ্রীষ্মের দুপুর মানেই সূর্যের প্রচন্ড তাপদাহ । খাঁ খাঁ রোদ্দুর, তপ্ত বাতাসের আগুনের হলকা । গাছের ডালে বসা দোয়েল পাখির বিশ্রাম। যশোর সদরের তালবাড়িয়া গ্রাম থেকে ছবিটি তুলেছেন শারমিন সাথী
গ্রীষ্মের দুপুর মানেই সূর্যের প্রচন্ড তাপদাহ । খাঁ খাঁ রোদ্দুর, তপ্ত বাতাসের আগুনের হলকা । গাছের ডালে বসা দোয়েল পাখির বিশ্রাম। যশোর সদরের তালবাড়িয়া গ্রাম থেকে ছবিটি তুলেছেন শারমিন সাথী

 


 

শৈশবের সঙ্গী ফড়িং দেখলে কার না মন উতলা হয়! বাহারি ফড়িংয়ের মনলোভা রং আর চপলতায় আছে অন্য রকম সৌন্দর্য। যশোরের ভায়না গ্রাম থেকে ছবিটি তুলেছেন শারমিন সাথী
শৈশবের সঙ্গী ফড়িং দেখলে কার না মন উতলা হয়! বাহারি ফড়িংয়ের মনলোভা রং আর চপলতায় আছে অন্য রকম সৌন্দর্য। যশোরের ভায়না গ্রাম থেকে ছবিটি তুলেছেন শারমিন সাথী

 

পুকুর, নদী-নালা, হাওর, বাঁওড়, বিলের মাঝে পুঁতে রাখা বাঁশের কঞ্চি বা লাঠির মাথায় ডানা মেলে ঠায় বসে আছে কালচে মতো একটি পাখি। প্রাকৃতিক এই সৌন্দর্য যেন বিখ্যাত ভাস্কর্যকেও হার মানায়। ডুবসাঁতারে অন্যতম সেরা পাখিটিই হচ্ছে পানকৌড়ি। সাহিত্য, শিল্প ও সংস্কৃতিতে এ পাখি নিয়ে বেশ আলোচনা পাওয়া যায়। ছন্দের যাদুকর সত্যেন্দ্রনাথ দত্ত লিখেছেন-চুপ চুপ ওই ডুব দেয় পানকৌটি/দেয় ডুব চুপ চুপ ঘোমটার বউটি-এ লেখার মধ্য দিয়ে পানকৌড়ির চঞ্চলতার পরিচয় মেলে। ছবিটি গতকাল সকালে যশোর সদরের ধানঘাটা এলাকা থেকে তুলেছেন আমাদের আলোকচিত্রী শারমিন সাথী।
পুকুর, নদী-নালা, হাওর, বাঁওড়, বিলের মাঝে পুঁতে রাখা বাঁশের কঞ্চি বা লাঠির মাথায় ডানা মেলে ঠায় বসে আছে কালচে মতো একটি পাখি। প্রাকৃতিক এই সৌন্দর্য যেন বিখ্যাত ভাস্কর্যকেও হার মানায়। ডুবসাঁতারে অন্যতম সেরা পাখিটিই হচ্ছে পানকৌড়ি। সাহিত্য, শিল্প ও সংস্কৃতিতে এ পাখি নিয়ে বেশ আলোচনা পাওয়া যায়। ছন্দের যাদুকর সত্যেন্দ্রনাথ দত্ত লিখেছেন-চুপ চুপ ওই ডুব দেয় পানকৌড়ি/দেয় ডুব চুপ চুপ ঘোমটার বউটি-এ লেখার মধ্য দিয়ে পানকৌড়ির চঞ্চলতার পরিচয় মেলে। ছবিটি গতকাল সকালে যশোর সদরের ধানঘাটা এলাকা থেকে তুলেছেন আমাদের আলোকচিত্রী শারমিন সাথী।

 

গ্রীষ্মের প্রচণ্ড গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন। তপ্ত দুপুরে পানিতেই যেন স্বস্তি। গরমে হাঁপ ধরা শিশু-কিশোর ঝাপাঝপ লাফিয়ে পড়ছে পানিতে। ছবিটি গতকাল যশোর সদরের ধানঘাটা সেতু থেকে তুলেছেন আমাদের আলোকচিত্রী শারমিন সাথী।
গ্রীষ্মের প্রচণ্ড গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন। তপ্ত দুপুরে পানিতেই যেন স্বস্তি। গরমে হাঁপ ধরা শিশু-কিশোর ঝাপাঝপ লাফিয়ে পড়ছে পানিতে। ছবিটি গতকাল যশোর সদরের ধানঘাটা সেতু থেকে তুলেছেন আমাদের আলোকচিত্রী শারমিন সাথী।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে