Saturday, July 2, 2022

আনারসের পাতা থেকে সুতা সৃজনশীল কাজে পৃষ্ঠপোষকতা প্রয়োজন

অপার সম্ভাবনার দেশ বাংলাদেশ। কিন্তু হলে কি হবে। সম্ভবনা থাকলেই তো আর আপনা আপনি সুফল হাতে পৌছায় না। হাতে পৌছানোর ব্যবস্থা করতে হয়। এ জন্য প্রয়োজন পৃষ্ঠপোষকতা, অর্থনৈতিকসহ সব ধরনের সহযোগিতা। আর এ ক্ষেত্রে সরকারি সুদৃষ্টি সবার আগে প্রয়োজন।

স¤া¢বনার দেশটিতে প্রতিনিয়ত নিত্য নতুন সম্ভাবনার খবর পাওয়া যায়। সর্বশেষ যে খবরটি পাওয়া গেছে তাহলো আনারসের পাতা থেকে হবে উন্নতমানের সুতা । এমন প্রমাণ পেয়েছে অ্যাগ্রোভিশন নামে একটি সংগঠন। ইতোমধ্যেই এর থেকে ফাইভার বের করে ফতাানি করা হচ্ছে নেদারল্যান্ডসে।

অ্যাগ্রোভিশনের চেয়ারম্যান রাজীব দেব জানান, মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল, কমলগঞ্জ, কুলাউড়া ও বড়লেখায় প্রচুর আনারস চাষ হয়। গাছ থেকে আনারস কাটার পর ওই গাছে আর নতুন করে ফল আসে না। ওই অংশের পাতা কেটে ফেলতে হয়। কেটে ফেলা পাতা থেকেই এখন তৈরি হবে সুতা। তিনি আশাবাদী এই এলাকার আনারস বাগানকে সামনে রেখে তিনি একটি সুতা তৈরির কারখানা করতে পারবেন। অ্যাগ্রো ভিশনের জাপানি কনসালটেন্ট টিমের প্রধান ওয়াদা সুহি মাঠে দেখেই তিনি নিশ্চিত করেন, এটি দিয়ে নরমাল নয় উন্নতমানের সুতা হবে। এই সুতা থেকে তৈরি কাপড় আরামদায়ক।

মিডিয়ার কল্যাণে আমরা এ ভাবে প্রতিনিয়ত অনেক সম্ভাবনার খবর পাই। কিন্তু কিছু দিন যেতে না যেতেই সে খবর নিয়ে আর কোনো উচ্চ বাচ্য থাকে না কারো । অর্থাৎ সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা না থাকায় সবই অন্ধকারের অতল গহ্বরে হারিয়ে যায়। বেশি দিনের কথা নয়, জানা গেল পাথরকুঁচির পাতা থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন হতে পারে। আর যে পরিমাণ বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে তাতে চাহিদার একটি বড় অংশ পূরণ হবে তাতে। এটা বাংলাদেশের জন্য কম আশাব্যঞ্জক কথা নয়। কিন্তু কোথায় যে তা হারিয়ে গেল তা কে বলবে।

যশোরের শার্শা মিজানুর রহমান একজন উদ্ভাবক। তিনি প্রতিবন্ধীদের জন্য মোটার গাড়ি, ডিজিটাল কাইচি, জ্বালানি বিহীন সেচযন্ত্র, ধোঁয়া থেকে জ্বালানী উৎপাদন, পরিবেশ সেফটি যন্ত্র, ব্যায়াম যন্ত্র থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনসহ বহু যন্ত্র উদ্ভাবন করেছেন। একই উপজেলার টেংরা গ্রামের শাহজাহান ডাক্তার বিনা জ্বালানিতে একটি সেচ যন্ত্র তৈরি করে এক পুকুর পানি সেচে দেখিয়ে দিয়েছিলেন তার উদ্ভাবিত য›েত্রর কার্যকারিতা।
কপোতাক্ষ নদের পাটা শেওলা দিয়ে মাছের খাদ্য তৈরি করা হয়েছে। এই খাদ্য ব্যবহার করে মাছ চাষে ব্যয়ও কমেছে। ব্যয় সাশ্রয়ের পরিমাণ দুই তৃতীয়াশ। মাছ চাষিরাও যে আর্থিক সাশ্রয় পাচ্ছেন। এক বস্তা খাদ্যের দাম যেখানে প্রায় দেড় হাজার টাকা সেখানে সমপরিমাণ শেওলার দাম মাত্র ১২০টাকা। মৎস্য বিভাগও এই শেওলা খাদ্যের কথা স্বীকার করে জানিয়েছে, এই খাদ্য গ্লাসকার্প ও রাজপুটির উত্তম খাদ্য। আর এই দুই প্রজাতির মাছের বিষ্ঠা পাঙ্গাস ও সব ধরনের সাদা মাছে খায়। তাছাড়া শেওলা খাদ্য খাওয়া মাছের বিষ্ঠার কারণে পানি নীল বর্ণ ধারণ করে, যা মাছের জন্য খুবই উপাদেয়।

এসব বিষয়ের বিকাশের জন্য দরকার সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা। তা না হলে কোনো ক্রমেই তা আলোর মুখ দেখতে পারবে না। আর সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় যদি বিকাশ লাভ করতে পারে তাহলে কোটি কোটি টাকার বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয় করে বিদেশ থেকে এ সব মেশিনপত্র আমদানি করতে হবে না। বৈদেশেক মুদ্রার সাশ্রয়ে দেশ এগিয়ে যাবে উন্নয়নের পথে। দেশ ও মানুষের কল্যাণের স্বার্থে সৃজনশীল কাজে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা বাড়–ক এটা কামনা আমাদের।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

কেন বিয়ে করেননি, জানালেন সুস্মিতা

বিনোদন ডেস্ক: কেন বিয়ে করেননি সাবেক বিশ্বসুন্দরী ও বলিউড অভিনেত্রী সুস্মিতা সেন; এমন প্রশ্ন...

করোনায় নতুন শনাক্ত ১৮৯৭, মৃত্যু ৫ জনের

কল্যাণ ডেস্ক: দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় (গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে আজ শুক্রবার সকাল...

বাংলাদেশ জঙ্গিবাদ দমনে যে ভূমিকা দেখিয়েছে, তা সত্যিই প্রশংসনীয়

কল্যাণ ডেস্ক: বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার ডি হাস বলেছেন, বাংলাদেশ জঙ্গিবাদ দমনে...

যশোরের কেশবপুরে নরসুন্দর যুবককে কুপিয়ে হত্যা

কেশবপুর প্রতিনিধি : জেলার কেশবপুর উপজেলায় নরসুন্দর এক যুবকের গলা ও পেট কেটে হত্যা করেছে...

হতদরিদ্রদের চালের দামও বাড়ল ৫ টাকা

ঢাকা অফিস: খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় দেশের ৫০ লাখ হতদরিদ্র মানুষের কাছে বিক্রি করা চালের...

নির্দলীয় সরকার নিয়ে উত্তপ্ত সংসদ

ঢাকা অফিস: বৃহস্পতিবার সংসদে নির্বাচন ব্যবস্থা নিয়ে তুমুল বিতর্ক হয়েছে। বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা...