Saturday, May 28, 2022

ইঞ্জিনের ইন্ডিকেটর কভার থেকেই আগুন, প্রাথমিকভাবে ধারণা তদন্ত কমিটির

কল্যাণ রিপোর্ট : বরগুনাগামী লঞ্চ এমভি অভিযান-১০-এ আগুনের সূত্রপাত ইঞ্জিনরুম থেকেই হয়েছে। লঞ্চের দুটি ইঞ্জিনের একটির ছয়টি ইন্ডিকেটর কভারের মধ্যে ৩ নম্বর নাট (নজেল) ঢিলা পাওয়া গেছে। এ ছাড়া একই ইঞ্জিনের ৬ নম্বর সিলিন্ডার হেডের কভার ভাঙা পাওয়া গেছে। এসব আলামতের ভিত্তিতে আগুনের সূত্রপাত সম্পর্কে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েছে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি।

শনিবার বেলা পৌনে ২টার দিকে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব তোফায়েল আহমেদের নেতৃত্বে ঝলসে যাওয়া অভিযান-১০-এ পরিদর্শন করেন তদন্ত কমিটির সদস্যরা। তাঁরা প্রথমে ক্ষতিগ্রস্ত ইঞ্জিনটি খতিয়ে দেখেন।

এ সময় তদন্ত কমিটির সদস্য ফরেন মেরিন ইঞ্জিনিয়ার তাইফুর আহমেদ ভুইয়া প্রাথমিকভাবে আগুনের সূত্রপাত নিশ্চিত করেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে তিনি ইঞ্জিনের ৩ নম্বর ইন্ডিকেটরটির কভারের নাট ঢিলা পান। এ ছাড়া ইঞ্জিনের ৬ নম্বর সিলিন্ডার হেড ভাঙা দেখতে পান।

বিষয়টি আরও নিশ্চিত হতে ডাকা হয় ঝালকাঠি লঞ্চ টার্মিনালের পাশে রাখা সুন্দরবন-১২ লঞ্চের দুই মাস্টারকে। তাঁদের মধ্যে মোস্তফা মীর প্রথম ক্লাস ও মো. জালাল সেকেন্ড ক্লাস মাস্টার। প্রায় ১০ মিনিট তাঁদের এ বিষয়ে মন্তব্য করতে বলা হয়। মন্তব্য শেষে তদন্ত কমিটির সদস্যরা তাঁদের বিভিন্ন প্রশ্ন করেন। তাঁরা অভিজ্ঞতা থেকে প্রশ্নের উত্তর দেন। এরপর এ বিষয়ে আরও নিশ্চিত হতে ডাকা হয় বিআইডব্লিউটিএর জাহাজ দুর্বার-এর মাস্টার আনিসুর রহমানকে। তিনিও ইন্ডিকেটর কভারের নাট ঢিলা থাকলে আগুন লাগতে পারে বলে নিশ্চিত করেন। এ ছাড়া আগুনের তীব্রতার কারণে ৬ নম্বর সিলিন্ডার হেড ফেটে যায় বলে জানান। এ সময় তাঁর কাছ থেকে বিভিন্ন বিষয়ে জানার চেষ্টা করা হয়।

তদন্ত কমিটির সদস্যরা ঘুরে ঘুরে ইঞ্জিনরুমের ইলেকট্রনিক সার্কিট ও বোর্ডের বিভিন্ন যন্ত্রপাতিও খতিয়ে দেখেন। ৪০ মিনিটেরও বেশি ইঞ্জিনরুমে অবস্থান শেষে লঞ্চ ঘুরে দেখেন তদন্ত কমিটির সদস্যরা। এরপর সাংবাদিকদের সঙ্গে তদন্তের বিষয়ে কথা বলেন।
আগুনের সূত্রপাতের বিষয়ে সাংবাদিকেরা জানতে চাইলে তদন্ত কমিটির প্রধান তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘আমরা প্রাথমিক একটি ধারণা পেয়েছি। তবে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে কমিটির অন্য সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে। এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। আমরা ঘটনাস্থলসহ কয়েকটি স্থান পরিদর্শন করেছি। হাসপাতাল পরিদর্শন শেষে একটা সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’
এদিকে লঞ্চে অতিরিক্ত যাত্রী তোলা হয়েছিল এবং লঞ্চে প্রথম শ্রেণির মাস্টার থাকার কথা থাকলেও ছিল না বলে অভিযোগ উঠেছে। এমন প্রশ্নের জবাবে তদন্ত কমিটির প্রধান বলেন, ‘আমরা বেশ কিছু কাগজপত্র পেয়েছি। এ ছাড়া মালিক ও লঞ্চের কর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছি। তদন্ত শেষে অভিযোগের বিষয়ে বলা যাবে।’
কারও গাফিলতি ছিল কি না? আর তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে এই যুগ্ম সচিব বলেন, ‘কারও গাফিলতি ছিল কি না, তদন্ত শেষে বলা যাবে। আর আমরা তদন্তের জন্য তিন দিন সময় পেয়েছি। এর মধ্যে আমাদের ঢাকা থেকে আসতে হয়েছে, ঘটনাস্থলসহ কয়েকটি স্থানে গিয়েছি। কিছু ভুক্তভোগী বরগুনা আছেন। আমাদের সেখানে যেতে হবে। হাসপাতালে রোগীদের সঙ্গে কথা বলতে হবে। সব মিলিয়ে যথা সময়ে রিপোর্ট দেওয়া কঠিন। তারপরও আমরা চেষ্টা করব।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে শার্শা ছাত্রলীগের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগ।...

বর্ণিল আয়োজনে ‘ভোরের সাথীর’ ১৬ বছর উদযাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক: বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, কেক কাটা, আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে যশোরে পালিত...

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশে ভারতে স্বীকৃতি পেল যৌন পেশা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতে যৌন পেশাকে আর বেআইনি বলা যাবে না। বৃহস্পতিবার (২৬ মে) এই...

বিশ্বের খর্বকায় কিশোরের স্বীকৃতি পেলেন দোর বাহাদুর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নেপালের ১৭ বছর বয়সি দোর বাহাদুর ক্ষেপাঞ্জিই এখন বিশ্বের সবচেয়ে খর্বকায় কিশোর।...

‘বলিউডে কাজ পেতে হলে আমাকে আরও সময় দিতে হবে’

বিনোদন ডেস্ক: টেলিভিশনের জনপ্রিয় তারকা উরফি জাভেদ। যিনি নিজের অদ্ভুত সব ফ্যাশনের জন্য পরিচিত...

টেস্টে ২ হাজারের ঘরে ছন্দে থাকা লিটন

ক্রীড়া ডেস্ক: শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ৮৮ রান করার পর, ঢাকায় দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম...