Thursday, July 7, 2022

চতুর্থ দফায় বন্ধ করা হলো মাতৃসেবা ক্লিনিক 

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোরের আলোচিত মাতৃসেবা ক্লিনিক এন্ড ডায়াগোনস্টিক সেন্টার চতুর্থ দফায় বন্ধ করে দিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। রোববার সিভিল সার্জন বিপ্লব কান্তি বিশ্বাস ক্লিনিকে অভিযান চালিয়ে বন্ধ করে সিলগালা করে দেন। এদিন সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে শহরের ঘোপ জেল রোডেও আরো একটি ক্লিনিক বন্ধন। অনুমোদন ছাড়াই নানান অনিয়মে পরিচালিত হওয়া এই দুটি প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন সেবা প্রদান করায় বন্ধ করে দেয় প্রশাসন। সিভিল সার্জন ছাড়াও ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. নাজমুস সাদিকসহ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা অংশ নেন।

যশোর শহরের ঘোপ জেল রোডের একটি ভবনের প্রথম ও দ্বিতীয়তলায় আগে ছিলো নূর মহল ক্লিনিক এন্ড ডায়াগোনস্টিক সেন্টার। নানা অনিয়মের কারণে স্বাস্থ্য বিভাগ অভিযান চালিয়ে এটি বন্ধ করে দেয়। এর কিছুদিন পর ক্লিনিক মালিক ডাক্তার মোজাম্মেল হক শুধুমাত্র সাইনবোর্ড পরিবর্তন করে নতুন নামকরণ করেন মাতৃসেবা ক্লিনিক এন্ড ডায়াগোনস্টিক সেন্টার। কিন্তু ডাক্তার, আয়া-কর্মচারী সবাই একই ছিল, শুধু বদলে ছিল সাইনবোর্ড। চতুর ডাক্তার মোজাম্মেল শুধুমাত্র নতুন ওই নামে ক্লিনিকের আবেদন করে চালিয়ে যাচ্ছিলেন একের পর এক অবৈধ কর্মকা-। রোগীর জীবন নিয়ে খেলা করা হচ্ছিল।

ক্লিনিকের দীর্ঘদিনেও ছিল না লাইসেন্স, বিশেষজ্ঞ ডাক্তার, দক্ষ সেবিকা, প্যাথলজিস্ট ও পর্যাপ্ত অবকাঠামোগত সুবিধা। শুধুমাত্র এমবিবিএম পাশ ডাক্তার মোজাম্মেল হক সকল রোগের বিশেষজ্ঞ সেজে অসুস্থ রোগীর অস্ত্রপোচার করছিলেন। আর কথিত সেবিকা পিঞ্জিরা চিকিৎসক সেজে রোগীকে অজ্ঞান করার কাজ চালিয়ে যাচ্ছিলেন। এ ক্লিনিকে চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি আসমা বেগম (৩২) নামে এক গৃহবধূ অপচিকিৎসায় মারা যান। এর পর সেখানে সিভিল সার্জন অভিযান চালিয়ে ক্লিনিক বন্ধ করে দেওয়া হয়। তিনদিন পর ১৩ জানুয়ারি ক্লিনিক বন্ধের আনুষ্ঠানিক চিঠি দেয়া হয় মাতৃসেবা ক্লিনিকে।

এরআগে ২০২০ সালের ১২ নভেম্বর যশোরের নির্বাহী ম্যাজিস্টেট মাহামুদুল হাসানের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে নানা অনিয়মের কারণে মাতৃসেবা ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধ ঘোষণা করেন। এসময় মালিক ডাক্তার মোজাম্মেল হককে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়। এর আগে অক্টোবর মাসে লাইসেন্সবিহীন মাতৃসেবা ক্লিনিকে অভিযান চালায় স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা। এসময় ভুয়া ডিগ্রি ব্যবহারের প্যাডসহ বিভিন্ন কাগজপত্র আগুনে পুড়ানোর পর মাতৃসেবা ক্লিনিকের সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন স্বাস্থ্য বিভাগ।

এরআগে ২০১৮ সালের জুলাই মাসে এ ক্লিনিকে ডাক্তার মোজাম্মেল হকের ভুল অস্ত্রোপচারে এক নারী মৃত্যুবরণ করেন। এ ঘটনায় সিভিল সার্জনের নির্দেশে একটি তদন্ত কমিটি গঠন হয়। তদন্ত প্রতিবেদনে নূর মহল ক্লিনিকের লাইসেন্স বাতিল ও রোগীর মৃত্যুর ঘটনায় চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়। একই বছরের ২ নভেম্বর নূর মহলের লাইসেন্স বাতিলের পত্র আসে সিভিল সার্জন অফিসে। পরে প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ করার নির্দেশ দেয়া হয়।

সিভিল সার্জন বিপ্লব কান্তি বিশ্বাস জানান, তারা রোববার বেশ কয়েকটি ক্লিনিকে অভিযান পরিচালনা করেন। এর মধ্যে মাতৃসেবা ও বন্ধন ক্লিনিকে অনিয়ম পাওয়ায় ক্লিনিক দুটি সিল গালা করা হয়েছে। মাতৃসেবা ক্লিনিক অবৈধভাবে পরিচালনা করায় ৪ মাস আগে সেটি বন্ধ করে দেয়া হয়। কিন্তু গোপনে তারা এতো দিন পরিচালনা করে আসছিলো। এছাড়া বন্ধন ক্লিনিকের ওটি বিভাগ সিলগালা করা হয়েছে। অবৈধ ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধে সরকারি নির্দেশনার অংশ হিসেবে এ সব ক্লিনিকে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

ঈদের আগে আনন্দধারায় শিক্ষক-কর্মচারীরা

এমপিওভুক্ত যশোরের ৬০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিজস্ব প্রতিবেদক :  সরকার ২ হাজার ৫১টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে নতুন করে এমপিওভুক্ত ঘোষণা...

নতুন রোটারী বর্ষ উদযাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক :  রোটারী ডিস্ট্রিক-৩২৮১-এর রোটারী বর্ষের সূচনা উপলক্ষে বুধবার বিকেলে যশোর শহরের বর্ণাঢ্য র‌্যালি...

যশোর বাস মালিক সমিতির নির্বাচন : মনোনয়নপত্র কিনেই ভোটযুদ্ধে প্রার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক : মনোনয়নপত্র কিনেই ভোটযুদ্ধে নেমে পড়েছেন যশোর বাস মালিক সমিতির নির্বাচনের প্রার্থীরা। শুরু...

যশোরে বিভিন্ন সহিংসতার ঘটনায় ১৫ জন আসামি

নিজস্ব প্রতিবেদক যশোর সদর উপজেলার চার এলাকায় সহিংসতার ঘটনায় কোতয়ালি থানায় আলাদা চারটি মামলা করা...

সহসা কমছে না লোডশেডিং

ঢাকা অফিস গ্যাস সংকট চলছে তাই বিদ্যুৎ উৎপাদনে বিঘœ ঘটাছে। দেশজুড়ে চলছে লোডশেডিং চলছে। কবে...

অপতৎপরতা রুখতে একসাথে কাজ করতে হবে : প্রতিমন্ত্রী স্বপন

মণিরামপুর প্রতিনিধি :  পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি বলেছেন, শেখ হাসিনা...