শুক্রবার, ডিসেম্বর ৯, ২০২২

চিংড়িতে মৃত্যুঝুঁকি মানুষের

রায়হান সিদ্দিক

কোনোভাবেই বন্ধ করা যাচ্ছে না চিংড়িতে জেলি পুশ। মানবদেহের জন্য এটা মারাত্মক ক্ষতিকরই নয়, মৃত্যুঝুঁকিও বাড়াচ্ছে । সাতক্ষীরা ও খুলনা অঞ্চল থেকে জেলি পুশকৃত চিংড়ি দেশে ও বিদেশে বাজারজাত করা হচ্ছে।

ব্যবসায়ীদের সূত্রে জানা গেছে, ভাতের মাড়সহ বেশ কিছু রাসায়নিকদ্রব্য মিশিয়ে বিশেষ ধরনের এ জেলি তৈরি করা হয়। পরে সিরিঞ্জ দিয়ে ওই জেলি চিংড়ির মাথায় পুশ করা হয়। এক কেজি চিংড়িতে ২৫০ গ্রাম জেলি পুশ করা হয়। এতে প্রতি কেজিতে বিক্রেতা ১শ’ টাকা বাড়তি পেয়ে থাকেন। জেলিযুক্ত চিংড়ি মানুষের চোখ, কিডনি নষ্ট করে দিতে পারে। ধীরে ধীরে মানুষ মৃত্যুর দিকে ধাবিত হতে থাকে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

যশোর গত দুমাসে প্রায় পাঁচ মেট্রিকটন সিলিকন জেলিযুক্ত চিংড়ি জব্দ করেছে র‍্যাব সদস্যরা। আর খুলনায় এ সময়ে ৭ হাজার ৮শ কেজি চিংড়ি জব্দের পর বিনষ্ট করা হয়।

জীবনের জন্য হুমকি জেলিযুক্ত
চিংড়ি যেন বাজারজাত না হয় সে
ব্যাপারে অভিযান অব্যাহত থাকবে।
—- মৎস্য মাননিয়ন্ত্রণ পরিদর্শক আশেকুর রহমান

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ১৯ মে রাতে তিনটি ট্রাকসহ ৬১ কার্টুনে ভর্তি দুই টন জেলি যুক্ত চিংড়ি জব্দ করে র‌্যাব। শহরের বাহাদুরপুর থেকে চিংড়িগুলো জব্দ করা হয়। পরে মালিকদের আড়াই লাখ টাকা জরিমানা করে মৎস্য অধিদপ্তরের পরিদর্শন ও মান নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা লিপটন সরদার।

৩ জুন এক ট্রাক চিংড়ি আটক করে তা ধ্বংস করে র‍্যাব-৬। চিংড়ির দুমালিককে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। এদিন রাতে যশোর-ঝিকরগাছা হাইওয়ের চাঁচড়ায় এ অভিযান চালানো হয়। এ সময় মাছের মালিক সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার নওয়াপাড়া গ্রামের জালাল ও আব্দুল্লাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৫০ হাজার টাকা করে ১ লাখ টাকা জরিমানা করে।

যশোরে দুই মাসে ৫ মেট্রিক টন জেলি
পুশ করা চিংড়ি জব্দ ও জরিমানা
আদায় ৪ লাখ ৩০ হাজার টাকা।
— র‌্যাব-৬ কমান্ডার এম নাজিউর রহমান

২৩ জুন যশোরে জেলি পুশ করা চিংড়ি জব্দ করা হয়। মালিককে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। শহরতলীর রাজারহাটে অভিযান চালিয়ে একটি মাছের ট্রাক থেকে চারটি কর্কশিট ভর্তি চিংড়ি জব্দ করা হয়।

সর্বশেষ ৩ জুলাই ফের রাজারহাটে অস্থায়ী চেকপোস্ট বসিয়ে ট্রাক ভর্তি এক টন জেলিযুক্ত চিংড়ি মাছ জব্দ করা হয়। এ চিংড়ি বাজারজাতকরণের উদ্দেশ্যে সাতক্ষীরা থেকে সিলেট নিয়ে যাওয়া হচ্ছিলো। র‍্যাবের একটি দল রাজারহাট সড়কের উপর অস্থায়ী চেকপোস্ট বসিয়ে চিংড়ি মাছ ভর্তি একটি ট্রাক আটক করে পরীক্ষা করা হয়। পরে চিংড়ি মাছের মালিককে পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার এম নাজিউর রহমান জানান, গত দুই মাসে প্রায় ৫ মেট্রিক টন জেলি পুশ করা চিংড়ি জব্দ করা হয়েছে এবং জরিমানা আদায় করা হয় ৪ লাখ ৩০ হাজার টাকা।

খুলনার খানজাহান আলী সেতুর (রূপসা ব্রিজ) টোলপ্লাজা থেকে দুই ট্রাক জেলি পুশকৃত ৭ হাজার ৮০০ কেজি চিংড়ি জব্দ করা হয়। পরে বাংলাদেশ ফ্রোজেন ফুড এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশন এবং মৎস্য অধিদপ্তর ও কোস্টগার্ডের যৌথ টিম সেগুলো নষ্ট করে। জব্দকৃত জেলি পুশকৃত চিংড়ির বাজারমূল্য প্রায় ১ কোটি টাকা।

বাংলাদেশ ফ্রোজেন ফুড এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশনের সহসভাপতি এস হুমায়ুন কবীর বলেন, বিদেশে এই জেলি পুশকৃত চিংড়ি রপ্তানি করায় দেশের সুনাম ক্ষুণœ হচ্ছে এবং রপ্তানি হওয়া চিংড়ি ফেরত আসার ঘটনা ঘটছে।

অসাধু মাছ ব্যবসায়ীরা নীরব ঘাতক।
তারা অগণিত মানুষকে মৃত্যুর
দিকে ঠেলে দিচ্ছে।
—- ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. নাজমুস সাদিক

যশোরের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. নাজমুস সাদিক জানান, এগুলো মানুষের চোখ, কিডনি নষ্ট করে দিতে পারে। ধীরে ধীরে মানুষ মৃত্যুর দিকে ধাবিত হতে থাকে। এতে বড় ধরনের রোগব্যাধিতে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। সে অর্থে এটি ‘স্লো-পয়জনিং’ এর পর্যায়ে পড়ে। অর্থাৎ এসব মাছ ব্যবসায়ী নীরব ঘাতকের ভূমিকা নিয়ে অগণিত মানুষকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে।

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ও পুষ্টিবিদ তানভীর আহমেদ জানান, চিংড়িতে ব্যবহৃত এই রাসায়নিক জেলি জীবননাশী ও মারাত্মক ক্ষতিকর। এগুলো মানুষের খাদ্যনালী, পরিপাকতন্ত্র এমনকি কিডনিও নষ্ট করতে পারে। এসব বিষাক্ত রাসায়নিক খেয়ে মানুষ ক্যান্সারেও আক্রান্ত হতে পারে।

এ বিষয়ে মৎস্য অধিদপ্তরের মৎস্য পরিদর্শন ও মান নিয়ন্ত্রণ যশোরের কর্মকর্তা লিপটন সরদার বলেন, দেশে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী অসৎ উপায়ে ওজন বৃদ্ধি করছে। যা আইনত অপরাধ।

খুলনা মৎস্য পরিদর্শন ও মাননিয়ন্ত্রণ পরিদর্শক আশেকুর রহমান বলেন, জীবনের জন্য হুমকি জেলিযুক্ত চিংড়ি যেন বাজারজাত না হয় সে ব্যাপারে দীর্ঘদিন এই অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে আসছি। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

কীভাবে চিনবেন জেলি-যুক্ত চিংড়ি?

বাজারে চিংড়ি কিনতে গেলে কোনটিতে জেলি আছে আর কোনটিতে নেই দেখে বোঝার তেমন কোন উপায় নেই বলে জানান মৎস্য কর্মকর্তারা। তবে এক্ষেত্রে ক্রেতাকে সতর্ক থাকতে হবে বলে জানান তারা।

মৎস্য কর্মকর্তারা বলেন, খালি চোখে দূর থেকে দেখলে বোঝা যাবে না যে চিংড়িতে জেলি আছে কিনা। এর জন্য কাছে গিয়ে দেখতে হবে। তবে নিশ্চিত হতে হলে চিংড়ি মাছের মাথা ভেঙ্গে তারপর দেখতে হবে যে সেখানে কোন তরল পদার্থ আছে কিনা।

এ বিষয়ে মৎস কর্মকর্তা বলেন, যদি চিংড়ি মাছ প্রাকৃতিক হয়ে থাকে তাহলে মাথা ভাঙ্গার পরও সেখানে থাকা দ্রব্যগুলো সহজেই ছড়িয়ে পড়বে না। আর যদি জেলি দেয়া থাকে তাহলে মাথা ভাঙ্গার সাথে সাথে সেখানে আলগা একটি বস্তু দেখা যাবে, নিচু করে ধরলে সেটা সবটা বেরিয়ে আসতে চাইবে। তখন বোঝা যাবে যে আলাদা কোন বস্তু সেখানে প্রবেশ করানো হয়েছে।
তবে অনেক সময় দোকানদার কিংবা মাছ-বিক্রেতারা মাথা ভেঙ্গে দেখতে দিতে চান না।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

যশোরে বিএনপি নেতা অমিত ও সাবুর বাড়ি অভিযান, আটক ২৬

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোরে বিএনপির খুলনা বিভাগীয় ভারপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত ও জেলা...

যশোরে থেকে ৪ দিনব্যাপী সাংস্কৃতিক উৎসব

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোরে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে বিজয়ের ৫১ বছর উদযাপন উপলক্ষে ৪ দিনব্যাপী...

যশোর যুবমৈত্রীর সম্মেলন সভাপতি অনুপ, সুকান্ত সম্পাদক

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ যুবমৈত্রী যশোর জেলা কমিটির সম্মেলনে অনুপ কুমার পিন্টু সভাপতি ও সুকান্ত...

বোমা নিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টির অভিযোগে একজনকে গণধোলাই

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোরে বোমা নিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টির অভিযোগে রাব্বিকে (৩৩) গণধোলাইয়ের পর পুলিশি সোপর্দ...

দুদক মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেলেন যশোরের সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম

নিজস্ব প্রতিবেদক: দুর্নীতি বিরোধী অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের জন্য ‘দুদক মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড-২০১৯’ অর্জন করেছেন প্রথম আলোর...

যশোর বিজিবির অভিযানে ১০ স্বর্ণের বারসহ চুয়াডাঙ্গা থেকে যুবক আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক: গতকাল চুয়াডাঙ্গার লকুনাথপুর থেকে যুবক মারুফ বিল্লাহকে ১০টি স্বর্ণের বারসহ আটক করেছে...