রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২

চৌগাছায় সারের জন্য কৃষকের হাহাকার

চৌগাছা প্রতিনিধি :

যশোরের চৌগাছায় চাহিদার চেয়ে অর্ধেক ইউরিয়া সার বরাদ্দ হওয়ায় চরম বিপাকে পড়েছেন চাষিরা। ভরা আমন মৌসুমে ইউরিয়া সারের কম সরবরাহের সাথে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করা হয়েছে এমওপি, টিএসপি ও ডিএপি সারের। এসব সারের দাম বাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। আর ইউরিয়া সার সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে প্রতি বস্তায় ৩০০-৪০০ টাকা বেশি নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। চৌগাছায় গত আগস্ট মাসে ইউরিয়া সারের চাহিদা ছিল ২০৫০ মে.টন। অথচ পাওয়া গেছে মাত্র ৯৮০ মে. টন। মাঠ পর্যায়ে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কোনো তদারকি নেই বলে কৃষকেরা অভিযোগ করেছেন। ফলে চলতি আমন আবাদ নিয়ে শঙ্কায় পড়েছেন চাষিরা।

আমন চাষিদের অভিযোগ, খুচরা পর্যায়ে বস্তা প্রতি ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা বেশি দরে কিনতে হচ্ছে সার। ইউরিয়া সারের দাম বৃদ্ধির কারণ কি জানতে চাইলে চৌগাছার একজন সার ডিলার জানান, চৌগাছায় চাহিদার তুলনায় সার দেওয়া হয়েছে অর্ধেক। তিনি বলেন, গত মাসে তিনি নিজে বরাদ্দ পেয়েছেন ৬১.২৫ মেট্রিক টন। অথচ তার এলাকায় সারের চাহিদা রয়েছে ৯০-১০০ মেট্রিক টন ।

কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বিসিআইসি’র তালিকাভুক্ত ১৬ জন সার ডিলার রয়েছেন। গত আগস্ট মাসে তাদের ইউরিয়া সারের চাহিদা ছিল ২০৫০ মে.টন বিপরীতে পেয়েছেন ৯৮০ মে. টন, টিএসপি চাহিদা ছিল ৪০০ মে.টন বিপরীতে পেয়েছেন ১৩২ মে.টন, ডিএপি ৮৫০ মে.টন বিপরীতে পেয়েছেন ২৯৭ মে.টন, এমওপি ১৫০০ মে.টনের বিপরীতে পেয়েছেন ২১৭ মে.টন।

এসব ডিলারের মাধ্যমে উপজেলার কৃষকদের সারের চাহিদা মেটাতে বরাদ্দ দেয়া হয়ে থাকে। অভিযোগ উঠেছে, কিছু কিছু ডিলারেরা সার উত্তোলন না করে আইন ভেঙে নির্দিষ্ট এলাকার বাইরেও অধিক মুনাফার লোভে সার বিক্রি করা হয়ে থাকে। যে কারণে উপজেলার কৃষকরা চাহিদা অনুযায়ী সার পান না। একারণে অতিরিক্তি দাম দিয়ে সার কিনতে হয়। এছাড়া ধূলিয়ানী বাজারের লাভলু নামের খুচরা সার ব্যবসায়ী বীরদর্পে ৮০০টাকার ডিএপি সার ১২০০থেকে ১৩০০ টাকা দরে বিক্রি করছে। এসব বিষয় দেখভাল করার জন্য উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিস থাকলেও তারা দেখেও না দেখার ভান করে।

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসের একটি সূত্র জানিয়েছে, নিয়মিত ডিলারদের গোডাউন সহ দোকান পরিদর্শন করার কথা থাকলেও তা করা হয় না। যে কারণে কৃষকদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়।

উপজেলার পুড়াপাড়া গ্রামের কৃষক ফজের আলী জানান, সরকার কর্তৃক নির্ধারিত ইউরিয়া সার ১ হাজার ১০০ টাকা হলেও ইউরিয়া ১২৫০ টাকা বস্তা এবং ডিএপি ৮০০ টাকা হলেও ১১০০ টাকায় কিনতে হচ্ছে। এছাড়া বেলেদাড়ি গ্রামের গোলাম মোস্তফা এক বস্তা ডিএপি এক হাজার ২৫০ টাকায় কিনেছেন।

একই উপজেলার পাতিবিলা গ্রামের কৃষক আহসান উল্লাহ জানান, এক বস্তা ইউরিয়া সার তিনি ১ হাজার ৩০০ টাকায় এবং এক বস্তা ডিএপি ১১০০ টাকায় কিনেছেন। কয়ারপাড়া গ্রামের কৃষক রফিউদ্দীন বলেন, কিছু দিন আগে তিনি ডিএপি এক হাজার ৩০০ টাকায় কিনেছেন।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চৌগাছায় ১১টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার বিপরীতে সারের ডিলারশিপ আছে ১৬জন এবং সাব ডিলার রয়েছেন ৭৩জন। এই সকল সার ডিলার যদি তাদের বরাদ্দ এলাকায় ডেলিভারি পয়েন্টগুলোতে নিয়ম মাফিক সার বিক্রয় করে তাহলে সার নিয়ে কৃষকের কোন সমস্যা হওয়ার কথা নয় ।

উপজেলা কৃষি অফিসার সমরেন বিশ্বাস বলেন, কৃষকদের চাহিদা তুলনায় সারের সরবরাহ কম থাকায় একটু সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে তবে সরকারের বরাদ্দকৃত সার সঠিকভাবে দেয়া হচ্ছে বলে জানান । তিনি আরো বলেন, যে ব্যবসায়ী কৃষকদের ঠকিয়ে বেশিমূল্যে সার বিক্রি করার চেষ্টা করছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

editorial

যানজটের শহর যশোর

মেধাবী ছাত্র মামুনের চিকিৎসায় সাহায্যের আবেদন

যশোরের নারায়নপুর ইউনিয়নের কাঁদবিলা গ্রামের নান্নু মিয়ার ছেলে মামুন। তার পুরো নাম আব্দুল হালিম...

জি কে শামীম ও ৭ দেহরক্ষীর যাবজ্জীবন

কল্যাণ ডেস্ক : অস্ত্র মামলায় জি কে শামীম ও তার সাত দেহরক্ষীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন...

মহালয়া আজ, ক্ষণ গণনা শুরু দুর্গাপূজার

নিজস্ব প্রতিবেদক : শারদীয় দুর্গোৎসবের পূণ্যলগ্ন, শুভ মহালয়া আজ। রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) থেকেই শুরু দেবীপক্ষের। চণ্ডীপাঠের...

আ.লীগ কখনো কারচুপির মাধ্যমে ক্ষমতয় আসেনি : প্রধানমন্ত্রী

কল‌্যাণ ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগ সরকারের মেয়াদে নির্বাচন প্রক্রিয়া স্বচ্ছ হওয়ার কথা...

কোটচাঁদপুরে সক্রিয় অপরাধী ও প্রতারক চক্র

কামাল হাওলাদার, কোটচাঁদপুর : ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে দিনে দুপুরে চুরি ছিনতাইসহ প্রতারক চক্রের প্রতারণার মাত্রা বেড়ে...

যানজটের শহর যশোর

যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল ঘেঁষে ১৬টি বেসরকারি চিকিৎসাসেবা প্রতিষ্ঠানের নেই পার্কিং ব্যবস্থা। হাসপাতালের...