Wednesday, July 6, 2022

তিন সহযোগীকে ফাঁসানোর অভিযোগ

কাউন্সিলর বাবুল হত্যাচেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোর পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আসাদুজ্জামান বাবুলকে হত্যাচেষ্টার ঘটনায় থানায় দেয়া অভিযোগ নিয়মিত মামলা হিসেবে রেকর্ড করেছে পুলিশ। আহতের স্ত্রী মনিরা সুলতানা কণার দায়ের করা মামলায় অ্যাডভোকেট বাবুলের একান্ত তিন সহযোগীসহ চারজনকে আসামি করা হয়েছে।

এই মামলার দুই নম্বর এজাহারভূক্ত আসামি রাজিব খান বলেছেন, প্রকৃত ঘটনাকে আড়াল করতে বাবুলের একান্ত কাছের তিনজনকে এই মামলায় আসামি করা হয়েছে। ঘটনার ১৪ দিন পর অ্যাড. বাবুলের স্ত্রী এই মিথ্যা মামলা করেছেন।

মামলার আসামিরা হলেন, নাজির শংকরপুর মাঠপাড়ার আব্দুর রউফ খানের ছেলে রাজিব খান, নাজির শংকরপুর পাসপোর্ট অফিস মোড়ের মনোয়ার হোসেন, সাদেক দারোগার মোড়ের মৃত সৈয়দ মনিরুল ইসলামের ছেলে আরিফ হোসেন ও জিরো পয়েন্ট মোড়ের আব্দুল হাইয়ের বাড়ির ভাড়াটিয়া জাহাঙ্গীর হোসেনের ছেলে সাকিব। এরমধ্যে সাকিব বাদে অন্যরা বাবুলের সাথে চলাফেরা করতেন।

বাদী অ্যাড. বাবুলের স্ত্রী মনিরা সুলতানা কণা মামলায় বলেছেন, তার স্বামী অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান বাবুল যশোর পৌরসভার ৯ ওয়ার্ড কাউন্সিলর, আওয়ামী লীগ নেতা এবং ৯ নম্বর ওয়ার্ড বিট পুলিশিং কমিটির সাধারণ সম্পাদক। এদিকে আসামি সাকিব, রাজিব খান, মনোয়ার হোসেন ও আরিফের সাথেও দীর্ঘদিন ধরে অ্যাড. বাবুলের বিরোধ চলে আসছিল। তারই সূত্র ধরে বাদীর স্বামীকে খুন করার ষড়যন্ত্র করে আসছে। সেকারণে তারা আসামি মনোয়ার হোসেনের বাড়িতে তারা একাধিকবার বৈঠক করেছে। আসামি সাকিব ও দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় নানা ধরণের অপরাধ মূলক কর্মকা- করে বেড়ায়।

এদিকে গত ২৯ মে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নাজির শংকরপুর চাতালের মোড় এলাকায় আফজাল হোসেন নামে একজন সন্ত্রাসীদের হাতে খুন হন। বাদীর স্বামী আফজাল হোসেনকে দেখতে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে গিয়েছিলেন। পাশাপাশি ৩০ মে মাগরিব বাদ তার জানাজায় ও অংশ নেন তার স্বামী। জানাজা শেষে তার স্বামী বাড়িতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে পায়ে হেঁটে রওনা করেন। এ সময় আসামি রাজিব, মনোয়ার, আরিফ ও সাকিব তার সাথে ছিল। কিন্তু পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক আসামি মনোয়ার হোসেনের বাড়ির সামনে পৌঁছানো মাত্র আসামি সাকিব কবর খোঁড়া কুড়াল দিয়ে পিছন দিক থেকে অ্যাড. আসাদুজ্জামান বাবুলের মাথায় আঘাত করে। আঘাতে অ্যাড. বাবুল মাটিতে পড়ে গেলে সাকিব দৌঁড়ে পালিয়ে চলে যায়। তবে সাকিবকে পালিয়ে যেতে সহযোগিতা করেছে অপর আসামি রাজিব, মনোয়ার ও আরিফ। এসময় সাথে থাকা বাদীর ছেলে ছেলে শাফিউল ইসলাম সাকিব ও ভাই আসিফ আলী টুলটুল তাকে উদ্ধার করে টুটুল নামে এক ব্যক্তির রিকসায় যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। কিন্তু তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় রাতেই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নিউরো সায়েন্স হাসপাতালে রেফার্ড করেন চিকিৎসকরা। ঢাকায় নেয়ার পর সেখানে কিছুটা সুস্থ্য হলে বাদী এই মামলা করেছেন। বাদী আরো বলেছেন আসামি রাজিব, মনোয়ার ও আরিফের ইন্ধনে আসামি সাকিব তার স্বামীকে হত্যাচেষ্টা চালিয়েছে।

এদিকে এই মামলার আসামি রাজিব জানিয়েছেন, তিনি জেলা পরিবহন মালিক সমিতির একজন কর্মকর্তা। সাকিব একজন ভালো ছেলে। তারপরও কি কারণে এই ঘটনা ঘটিয়েছে তা তার জানা নেই। এছাড়া প্রকৃত ঘটনাকে আড়াল করতে পৌর কাউন্সিলর অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান বাবুলের স্ত্রী মনিরা সুলতানা কণা এই মিথ্যা মামলাটি করেছেন। তিনি সঠিকভাবে তদন্ত সাপেক্ষে মূল ঘটনা উদঘাটন করে দোষীদের শাস্তি নিশ্চিতের জন্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

পিঠে ছুরিবিদ্ধ খোকন নিজেই গাড়ি ভাড়া করে আসেন যশোর হাসপাতালে

নিজস্ব প্রতিবেদক : পিঠে বিদ্ধ হওয়া ছুরি নিয়ে নিজেই যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসেছেন...

নায়কদের নামে কোরবানির গরু, আপত্তি জানালেন ওমর সানি

কল্যাণ ডেস্ক : আগামী ১০ জুলাই পবিত্র ঈদুল আজহা। মুসলিম সম্প্রদায় এই ঈদে পশু কোরবানির...

এশিয়ার বাইরের উইকেটের যে কারণে অসহায় মোস্তাফিজ

ক্রীড়া ডেস্ক : মোস্তাফিজুর রহমানের বোলিং দেখে ক্যারিয়ারের শুরুতে অনেকে তাকে বলতেন, 'জোর বল করা...

নতুন ২৭১৬ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত

কল্যাণ ডেস্ক : শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উভয় বিভাগের আওতায় আরও ২ হাজার ৭১৬টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করার...

নওয়াপাড়া বন্দরে অবৈধ তালিকায় ৬০ ঘাট

অবৈধভাবে গড়ে উঠা ঘাটের কারণে কমছে নদীর নাব্যতা ৫ বছরে অর্ধশত জাহাজ ডুবিতে ক্ষতিগ্রস্ত...

মণিরামপুরে জমজমাট কোরবানির পশু হাট

আব্দুল্লাহ সোহান, মণিরামপুর : দক্ষিণবঙ্গের অন্যতম হাট মণিরামপুরের গরু-ছাগলের হাট। প্রতি শনি ও মঙ্গলবার এখানে...