রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২

নির্বাচন নিয়ে সংবিধানের বাইরে যাবে না আ.লীগ : প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা অফিস : নির্বাচনের বিষয়ে আওয়ামী লীগ সংবিধানের বাইরে যাবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার গণভবনে অনুষ্ঠিত ভারত সফর পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে এমনটা বলেন তিনি।

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, সবাই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক সেটাই আমরা চাই। কিন্তু যদি কেউ অংশগ্রহণ না করে সেটা যার যার দলের সিদ্ধান্ত। সেজন্য আমরা সংবিধান বন্ধ করে রাখতে পারি না। আমরা চাই গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত থাকুক। সংবিধান অনুযায়ী গণতান্ত্রিক ধারাটি অব্যাহত থাকবে।

এত কাজ করার পরে জনগণ অবশ্যই আওয়ামী লীগকে ভোট দেবে। এটা আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি। যদি এই চলমান উন্নয়নের ধারাটা অব্যাহত রাখতে চায়, আর না চাইলে তো কিছু করার নাই, সেটা জনগণের ইচ্ছা।

নির্বাচনি জোট নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, এই বিষয়টা তো সময় আসলে বলতে পারব, নির্বাচন যখন হবে। হ্যাঁ, আমরা ১৪ দল করেছি, আমরা জোটবদ্ধভাবে নির্বাচন করেছি। জাতীয় পার্টি আমাদের সাথে ছিল। কিন্তু আমরা আলাদা নির্বাচন করেছি, আমাদের একটা সমঝোতা ছিল। ভবিষ্যৎ নির্বাচনে কে কোথায় থাকবে সেটা তো সময়ই বলে দেবে। আওয়ামী লীগ উদারভাবে কাজ করে। আওয়ামী লীগের দরজা খোলা। আর আমাদের সাথে কে থাকবে না থাকবে অথবা নতুন জোট হবে, হবে হোক অসুবিধা নেই তো।

আওয়ামী লীগের নমিনেশন প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, ‘যে কোনো নির্বাচনে নমিনেশনের ব্যাপারে পরিবর্তন এটা তো খুব স্বাভাবিক ব্যাপার। আমরা অবশ্যই যাচাই করে দেখব কার জেতার সম্ভাবনা আছে, কার নেই অথবা আমাদের বেশ কিছু নিবেদিতপ্রাণ কর্মী আছে, হয়তো বেশি দিন বাঁচবে না। বয়স হয়ে গেছে, বয়োবৃদ্ধ হয়ে গেছে বা কিছু আছে তাদের আর কষ্ট দিতে চাইনি, নমিনেশন দিয়েছি আর পরিবর্তন আনিনি। কে ভোট পাবে না পাবে, জিতবে কে জিতবে না সবকিছু বিবেচনা করেই নমিনেশন দেওয়া হয়। নির্বাচনের এখনো এক বছর বাকি আছে, সময় যত যাবে ততই বিষয়টা পরিষ্কার হবে।’

এর আগে সংবাদ সম্মেলনের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান। এরপর সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দেন।

গত ৫ সেপ্টেম্বর চার দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ভারতে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সফরকালে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পানি ব্যবস্থাপনা, রেলপথ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, তথ্য ও সম্প্রচার বিষয়ে সাতটি চুক্তি এবং সমঝোতা স্মারক সই হয়। এ ছাড়া নিরাপত্তা সহযোগিতা, বিনিয়োগ, ক্রমবর্ধমান বাণিজ্য সম্পর্ক, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের সহযোগিতা, অভিন্ন নদীর পানিবণ্টন, পানিসম্পদ ব্যবস্থাপনা, সীমান্ত ব্যবস্থাপনা, মাদক চোরাচালান ও মানবপাচার রোধের বিষয়গুলো গুরুত্ব পায়। সফর শেষে গত বৃহস্পতিবার দেশে ফেরেন প্রধানমন্ত্রী।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

editorial

যানজটের শহর যশোর

মেধাবী ছাত্র মামুনের চিকিৎসায় সাহায্যের আবেদন

যশোরের নারায়নপুর ইউনিয়নের কাঁদবিলা গ্রামের নান্নু মিয়ার ছেলে মামুন। তার পুরো নাম আব্দুল হালিম...

জি কে শামীম ও ৭ দেহরক্ষীর যাবজ্জীবন

কল্যাণ ডেস্ক : অস্ত্র মামলায় জি কে শামীম ও তার সাত দেহরক্ষীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন...

মহালয়া আজ, ক্ষণ গণনা শুরু দুর্গাপূজার

নিজস্ব প্রতিবেদক : শারদীয় দুর্গোৎসবের পূণ্যলগ্ন, শুভ মহালয়া আজ। রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) থেকেই শুরু দেবীপক্ষের। চণ্ডীপাঠের...

আ.লীগ কখনো কারচুপির মাধ্যমে ক্ষমতায় আসেনি : প্রধানমন্ত্রী

কল‌্যাণ ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগ সরকারের মেয়াদে নির্বাচন প্রক্রিয়া স্বচ্ছ হওয়ার কথা...

কোটচাঁদপুরে সক্রিয় অপরাধী ও প্রতারক চক্র

কামাল হাওলাদার, কোটচাঁদপুর : ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে দিনে দুপুরে চুরি ছিনতাইসহ প্রতারক চক্রের প্রতারণার মাত্রা বেড়ে...

যানজটের শহর যশোর

যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল ঘেঁষে ১৬টি বেসরকারি চিকিৎসাসেবা প্রতিষ্ঠানের নেই পার্কিং ব্যবস্থা। হাসপাতালের...