পাইকগাছার আমুরকাটা রংধনু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নিয়োগ পরীক্ষা বন্ধ

সাতক্ষীরা

পাইকগাছা (পৌর) প্রতিনিধি
পাইকগাছায় সোলাদানা ইউপির আমুরকাটা রংধনু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শুক্রবারের পূর্ব নির্ধারিত ৪ টি শূন্য পদের নিয়োগ পরীক্ষা ঘোষণা করেন সভাপতি। ইতোমধ্যে এ নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ ওঠায় একপর্যায়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি অজিত কুমার মন্ডল নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল ঘোষণা করেন।

এতে করে আন্দোলনকারীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরলেও নিয়োগ প্রত্যাশীরা পড়েছেন বেকায়দায়। এদিকে বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক প্রয়াত প্রধান শিক্ষক রজত কুমার মন্ডলের স্ত্রী শিখা রানী ও তার পরিবারের সদস্যরা এমপি আক্তারুজ্জামান বাবুর সাথে দেখা করে ম্যানেজিং কমিটির অচলাবস্থা সহ বিদ্যালয়ের উন্নয়নের বিষয়ে তার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এ বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটি নিয়ে হাইকোর্টে দীর্ঘদিন ঝুলে থাকা মামলা ও বিভিন্ন সময় একাধিক নিয়োগ নিয়ে অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। যার ফলে এলাকায় পক্ষ-বিপক্ষ থাকায় দ্বন্দ্ব লেগেই রয়েছে। এদিকে অফিস সহকারীসহ চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীর ৪ টি শূন্যপদে সর্বশেষ গত ৮/১০/২১ তারিখে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়। কিন্তু আবেদনের সময়সীমা উত্তীর্ণ হয়ে গেলে অপেক্ষামান অনেক নিয়োগ প্রত্যাশীরা উপায়ন্তর না পেয়ে জনমত সৃষ্টি করে আন্দোলনমুখি হয়ে ওঠে এবং পাইকগাছা সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে নিয়োগ বন্ধের জন্য বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, সভাপতিসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে অভিবাবক সদস্য সুনীল কৃষ্ণ মন্ডল বাদী হয়ে দেওয়ানী ৯৩৭ নং মামলা করে। সর্বশেষ ১ ডিসেম্বর উপজেলা পরিষদের মাসিক সমন্বয় সভায় বিষয়টি উত্থাপন হয়। ওই দিন বিকেলে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি অজিত কুমার মন্ডল ৪ টি শূন্যপদে নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল ঘোষণা করেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিদ্যালয়ের সভাপতি বলেন, বিজ্ঞপ্তির বিষয়টি জানাজানি কম হওয়ায় বিতর্ক এড়াতে শেষ মুহূর্তে পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। এ সম্পর্কে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রমেন্দ্র নাথ মন্ডল জানান, ম্যানেজিং কমিটির সভার সিদ্ধান্তমতে পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। এখানে কোন অনিয়মের ঘটনা ঘটেনি। কিন্তু কোনরূপ সভা না সভাপতির পরীক্ষা বন্ধের ঘোষণা আইনসম্মত কিনা তা নিয়ে তিনি উল্টো প্রশ্ন তুলে ধরেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে