Tuesday, August 9, 2022

বেকারত্ব দূর করতে ব্যবস্থা নিতে হবে

দেশে বেকারত্বের হার দিন দিন বাড়ছে। দক্ষ-অদক্ষ বেকারের সংখ্যা বেড়েই চলেছে প্রতিনিয়ত। যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরি পাচ্ছেন না দেশের শিক্ষিত যুব সমাজ। যা বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল একটি দেশের অর্থনীতির জন্য মারাত্মক হুমকি স্বরূপ। ৫ বছর আগের এক জরিপে দেখা যায়, দেশে বেকারের সংখ্যা ছিল ২৬ লাখ। এর মধ্যে পুরুষের সংখ্যা ছিল ১৪ লাখ ও নারীর সংখ্যা ছিল ১২ লাখ। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর এক জরিপে দেখা যায়, জাতীয় বেকারত্বেও হার ৪ দশমিক ২ শতাংশ। এর মধ্যে উচ্চ শিক্ষিত বেকারত্বের হার সবচেয়ে বেশি। তারা তাদের যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরি না পাওয়ায় দেশের অর্থনীতিতে কোনো ভূমিকা পালন করতে পারছেন না।

এক তরুণ তার হৃদয় উৎসারিত এক আর্তিতে উল্লেখ করেছেন, উচ্চশিক্ষা যেন তাদের চাকরি পাওয়ার নিশ্চয়তা দিতে পারছে না। অধিকাংশ শিক্ষিত তরুণরা তাদের পছন্দ অনুযায়ী চাকরি না পেয়ে দেশ ত্যাগে বাধ্য হচ্ছেন। প্রতিনিয়ত দেশ থেকে বিদেশে মেধা পাচার হয়ে যাচ্ছে। ফলে দেশ হয়ে যাচ্ছে মেধাশূন্য। এমনকি তারা বিদেশে চাকরি নিয়ে স্থায়ীভাবে বসবাস করার পরিকল্পনা গ্রহণ করছেন। আবার অনেকে বেকারত্বেও অসহ্য যন্ত্রণা সইতে না পেরে বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজে জড়িয়ে পড়ছেন। অনেকে মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছেন। পরিবার ও সমাজের ধিক্কারের কাছে অবশেষে তাদেরকে হেউ হতে হচ্ছে। পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্র তাদেরকে বোঝা মনে করে। এমনকি ব্যক্তি জীবনও হয়ে ওঠে দুঃসহ। ফলে রাষ্ট্রযন্ত্রের সর্বত্র দেখা দিচ্ছে বিশৃঙ্খলা। সর্বোপরি তরুণ শিক্ষিত সমাজ বেকারত্বের এক বেড়াজালে আবদ্ধ। দেশের প্রতিটি শিক্ষিত যুবক তাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে আছে। ক্রমবর্ধমান এই সমস্যা সমাধানে আশু পদক্ষেপ গ্রহণ না করা হলে অর্থনৈতিক কাঠামো ও সামাজিক জীবন ব্যাহত হবে। তাই দেশের শিক্ষিত তরুণ সমাজকে উপযুক্ত কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিতে হবে। তারা যেন সমাজ ও রাষ্ট্রের অর্থনীতিতে ভূমিকা পালন করতে পারে।

চাকরিটা কিন্তু এখনো সোনার হরিণই থেকে গেছে। দুর্নীতি বন্ধের কথা যতই বলা হোক না কেন চাকরির ক্ষেত্রে তা আগের মতোই থেকে গেছে। শিক্ষকতার সাধারণ চাকরিটা নিয়ে যা চলছে তা আর বলে শেষ করা যাবে না। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির নিয়োগ বাণিজ্য ঠেকাতে রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি চালু করা হলেও তাতে বন্ধ হয়নি সেই ঘৃণীত বাণিজ্য। যারা নিয়োগ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে নিয়োগ পেয়ে যোগদান করতে যাচ্ছেন তারা পড়ছেন ওই ম্যানেজিং কািমটি নামক জগদ্দল পাথরের পাতা ফাঁদে। সে সময় কয়েক লাখ টাকা না দিলে যোগদান করতে দিচ্ছে না ম্যানেজিং কমিটি। বেকাররা যাতে সহজে চাকরিতে ঢুকতে পারে সে ব্যবস্থা সরকারকে নিতে হবে। নতুবা বেকারত্বের ভারে দেশটা ভারাক্রান্ত হয়ে পড়বে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

পবিত্র আশুরা আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক : আজ মঙ্গলবার ১০ মহররম। পবিত্র আশুরা। কারবালার শোকাবহ ঘটনাবহুল এ দিনটি মুসলমানদের...

পবিত্র আশুরা

আজ পবিত্র আশুরা। বিভিন্ন দিক দিয়ে এ দিন অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। মানবজাতির আদি পিতা হজরত...

যশোরে স্বজন সংঘের নতুন কমিটি গঠন

স্বেচ্ছাসেবী ও সমাজকল্যাণমূলক সংস্থা স্বজন সংঘের দুই বছরের জন্য নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে।...

বাফওয়া যশোরের উদ্যোগে বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকী উদযাপন

বাংলাদেশ বিমান বাহিনী মহিলা কল্যাণ সমিতি (বাফওয়া) মতিউর আঞ্চলিক শাখা যশোরের উদ্যোগে সোমবার বঙ্গমাতা...

স্বাধীনতা অর্জনে বঙ্গমাতা ছিলেন সহায়ক : প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা অফিস : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ঐতিহাসিক ৬ দফা, আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা চলাকালীন প্যারোলে...

ডলার সঙ্কট : ছয় ব্যাংকের ট্রেজারি প্রধানকে অপসারণে চিঠি

ঢাকা অফিস : প্রয়োজনের চেয়ে বেশি ডলার সংরক্ষণ করে দর বৃদ্ধির ‘প্রমাণ পাওয়ায়’ ছয় ব্যাংকের...