শুক্রবার, ডিসেম্বর ৯, ২০২২

বেনাপোলে পাসপোর্ট যাত্রীদের তল্লাশির নামে বিজিবির হয়রানি

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) বেনাপোল চেকপোস্টে বৈধ পাসপোর্টযাত্রীদের হয়রানি করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কাস্টমস বিভাগের চেক ও স্ক্যানিংয়ের পর পেসেঞ্জার টার্মিনালের সামনে ফের বিজিবি চেকের নামে হয়রানি করছে। কেড়ে নিচ্ছে পণ্য। এসব পণ্যের কোনো কাগজপত্র দেয়া হচ্ছে না পাসপোর্টযাত্রীদের। প্রতিবাদ করলে নেমে আসে চালান দেয়ার হুমকি। তবে বিজিবি বলছে, সুনিদিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা ব্যাগ তল্লাশি করছি।

বিজিবির এসব অভিযোগের বিরুদ্ধে স্থানীয় সাংবাদিকরা লেখালেখি করলে তাদেরও দেয়া হয় নানা ধরনের হুমকি। এর আগেও লাঞ্ছিত হয়েছেন ২/৩ জন সাংবাদিক। এজন্য বেনাপোল চেকপোস্ট থেকে আমড়াখালি পর্যন্ত বিজিবির হয়রানি চললেও কেউ কিছু বলার সাহস পাচ্ছে না।

খুলনার পাসপোর্টযাত্রী সবুজ হোসেন বলেন, বেনাপোল ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস থেকে বের হওয়ার পর প্যাসেঞ্জার টার্মিনালের সামনে বিজিবি সদস্যরা আমার প্রতিটি ব্যাগ খুলে তন্নতন্ন করেছে। এরআগে কাস্টমস চেক করেছে। ইমিগ্রেশনে চেক করা হয়েছে। একই জায়গায় তিনবার চেক করা আমাদের জন্য হয়রানি।

ঢাকার কেরাণীগঞ্জের পাসপোর্টযাত্রী আবুল হাশেম অভিযোগ করেন, তার ক্রয়কৃত শার্ট, প্যান্টের পিস ও তার পুরাতন ব্যবহৃত শার্ট বেনাপোল চেকপোস্ট বিজিবি রেখে দিয়েছে। তিনি জানান, কাস্টমস কর্তৃপক্ষ চারশত ডলারের পণ্য ভারত থেকে শুল্ক বাদে আনার অনুমতি দিলেও বিজিবি তা মানছে না।

পাসপোর্টযাত্রী কাশেম আলী, রেহেনা খাতুনসহ অনেকের সাথে কথা বলে জানা যায়, কাস্টমস স্ক্যানিং করে তারপর ব্যাগ খুলে চেক করে। এরপর কাস্টমস শুল্ক গোয়েন্দারাও ব্যাগ তল্লাশি করে ছেড়ে দেয়। তারপর গেট পার হলে রাস্তার উপর বিজিবি ওই একই ব্যাগ খুলে তল্লাশি করে। ব্যাগের সাইজ বড় দেখলে ক্যাম্পে নিয়ে তন্নতন্ন করে তল্লাশি চালায়। এটা কোনো সভ্য সমাজের কাজ হতে পারে না।

বেনাপোল চেকপোস্টের একটি সূত্র জানায় সম্প্রতি বিজিবি বেনাপোলের পুটখালী সীমান্তের ৮ কিলোমিটার ‘ফ্রি ক্রাইম জোন’ ঘোষণা করলেও সেখানে থেমে নেই স্বর্ণপাচার এবং ভারত থেকে মাদক পাচার। সীমান্তের বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে প্রতিদিন ভারত থেকে মদ, গাঁজা, ফেনসিডিল আসছে। আবার বাংলাদেশ থেকে প্রতিদিন কোটি কোটি টাকার স্বর্ণ ও হুন্ডির টাকা পাচার হলেও মাঝে মধ্যে দুই একটি চালান আটক করলেও এর সিংহ ভাগই থাকে ধরাছোয়ার বাইরে। অথচ বৈধ পথে ভারত থেকে এলে যাত্রীদের হয়রানি করা হচ্ছে।

যাত্রীরা অভিযোগ করে বলেন, পাসপোর্টযাত্রীর কাছ থেকে বিজিবি যেসব পণ্য রেখে দিচ্ছে তার কোনো কাগজপত্র দিচ্ছে না। এই পণ্যগুলো কোথায় কীভাবে যাচ্ছে বা কাস্টমসে সঠিকভাবে জমা হচ্ছে কি-না তার কোনো সঠিক প্রমাণাদি নেই। কারণ ওইসব পণ্যের মালিক থাকার পরও মালিকবিহীন দেখিয়ে তারা পণ্য আটক করছে।

এর আগে বিজিবি পাসপোর্টযাত্রীদের কাছ থেকে যেসব পণ্য আটক করতো তাদের নাম ও পাসপোর্ট নম্বর উল্লেখ করে কাস্টমসে জমা দিত। এবং যাত্রীদের এক কপি কাগজও দিয়ে দিত। ওই কাগজ নিয়ে যাত্রী কাস্টমস থেকে সরকারি শুল্ক পরিশোধ করে পণ্য চালান ছাড় দিতো। এখন বিজিবি যাত্রীদের কোনো কাগজ দিচ্ছে না। ফলে যাত্রীরা ওই পণ্য সরকারি শুল্ক দিয়ে নিতেও পারছে না। আটক সব পণ্য কাস্টমস গোডাউনে জমা করা হয় কি না তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে যাত্রীদের মাঝে।

বেনাপোল চেকপোস্টে পাসপোর্টযাত্রী সুজন হোসেন বলেন, সরকারের কাস্টমস বিভাগ ব্যাগ স্কানিং ও তল্লাশি করে ছেড়ে দেয়ার পর একই বিজিবি কাস্টমস গেটে, আমড়াখালী চেকপোস্টে, বেনাপোল রেলস্টেশন এলাকায় তল্লাশি করে থাকে। এতে করে হয়রানি হতে হতে ধৈর্যের বাধ ভেঙে যায়।

তিনি বলেন, সরকারি ভ্রমণ কর দিয়ে বৈধপথে ভারত থেকে ব্যবহারের কিছু জিনিসপত্র আনার পরও বিজিবির হাতে প্রতিনিয়ত হয়রানির শিকার হচ্ছি। আমরা সবাই জিম্মি হয়ে গেছি প্রশাসনের লোকদের কাছে।

বেনাপোল কাস্টমসের একটি সূত্র জানায়, বন্ডেড এলাকার ৫ কিলোমিটারের মধ্যে বিজিবির বৈধ পাসপোর্টযাত্রীদের কোনো পণ্য দেখার নিয়ম না থাকলেও তারা এটা দেখছে আমাদের করার কিছু নেই। এ নিয়ে বারবার বৈঠক হওয়া সত্ত্বেও বিজিবি তা মানছে না বলে সূত্র জানায়।

বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি মফিজুর রহমান সজন বলেন, এ ব্যাপারে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করেও কোনো কিছু হচ্ছে না বলে তিনি জানান। দেশি-বিদেশি পাসপোর্টযাত্রীরা বেনাপোল চেকপোস্টে এসে অসম্মানিত হচ্ছে।

এব্যাপারে যশোর বিজিব’র কমান্ডিং অফিসার শাহেদ মিনহাজ সিদ্দিকী দৈনিক কল্যাণকে বলেন, বিজিবি সদস্যরা সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে ব্যাগ তল্লাশি করে থাকে। আবার আমাদের ডগস্কোয়াড যেটি সনাক্ত করে সেটি খোলা হয়। কেউ অযথা হয়রানি হয় না। বিজিবির কোন সদস্য হয়রানি করলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হয়ে থাকে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

দুর্নীতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে: ডিসি

নিজস্ব প্রতিবেদক: আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস-২০২২ উপলক্ষে যশোরে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়েছে। শুক্রবার...

যশোরে ৮ নারী পেলেন শ্রেষ্ঠ জয়িতার পুরস্কার

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক: শুক্রবার ছিল নারী জাগরণের অগ্রদূত রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেনের ১৪২ তম জন্মবার্ষিকী ও...

বিয়ে করতে অস্বীকার করায় কলেজছাত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক: শারীরিক সম্পর্কের পর বিয়ে করতে অস্বীকার করায় এক কলেজছাত্রী হারপিক পানে আত্মহত্যার...

যশোরে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে টাকা আত্মসাত, একজন আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক: চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে কোতোয়ালি থানায় মামলা হয়েছে।...

ইসলামী ধারার তিনটি ব্যাংক থেকে টাকা তুলে নিচ্ছে যশোরের গ্রাহকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোরের গ্রাহকরা ইসলামী ধারার তিনটি ব্যাংক থেকে টাকা তুলে নিচ্ছে। নানা অনিয়মের...

বিনাখরচে পাঠকের বাড়িতে পৌঁছে যাবে বই

নিজস্ব প্রতিবেদক: বই পড়ায় উদ্বুদ্ধ করতে যশোরে ‘সপ্তাহে একটি বই পড়ি’ সংগঠন পাঠকের হাতে...