Wednesday, July 6, 2022

বেনাপোল দিয়ে ভারতে যান আলোচিত পি কে হালদার

কল্যাণ ডেস্ক: ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানের সময় ২০১৯ সালে পি কে হালদারের নাম সামনে আসে। এ সময় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) যে ৪৩ জনের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান শুরু করে, পি কে হালদার তাদের একজন। এরপর তার বিরুদ্ধে শুরু হয় আইনি প্রক্রিয়া। তবে তার আগেই দেশ থেকে পালিয়ে যান তিনি।

২০১৯ সাল থেকে এত দিন ধরে খোঁজার পর অবশেষে ১৪ মে পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক এই ব্যবস্থাপনা পরিচালককে। তিনি যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও কানাডা ঘুরে ভারতে গা ঢাকা দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ। দেশটির কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ইডি) অভিযানে পি কে হালদারসহ যে ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে, তাদের মধ্যে এক নারীও রয়েছেন, যাকে বলা হচ্ছে তার স্ত্রী সুস্মিতা সাহা।

ইডির বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টেলিগ্রাফ ইন্ডিয়া বলছে, ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে বেনাপোল-পেট্রাপোল দিয়ে ভারতে ঢোকেন আলোচিত পি কে হালদার। নাম পাল্টে তিনি নিজের নাম দেন শিবশঙ্কর হালদার।

শিবশঙ্কর হালদার পরিচয়ে ভারতীয় নাগরিকত্ব নেয়ার পাশাপাশি পি কে জালিয়াতি করে রেশন কার্ড, ভারতীয় ভোটার আইডি কার্ড, প্যান কার্ড ও আধার কার্ড নিয়েছিলেন বলে এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে গোয়েন্দা সংস্থা।
ইডির একজন কর্মকর্তা জানান, পি কে হালদারের সহযোগীরাও একইভাবে পরিচয় গোপন করে সেখানে ব্যাবসায়িক কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন। জালিয়াতি করে ভারতীয় নাগরিকত্ব নিয়েছেন তারা। ২০১৬ সালের বন্দিবিনিময় চুক্তি অনুযায়ী পি কে হালদারকে বাংলাদেশের হাতে তুলে দেয়া হবে বলে জানান তিনি। তবে এই প্রক্রিয়া কবে শুরু হবে তা নিয়ে তথ্য দিতে পারেননি এ কর্মকর্তা।

দুদক ২০২০ সালের ৮ জানুয়ারি পি কে হালদারের বিরুদ্ধে ২৭৫ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করে। মামলার অভিযোগে বলা হয়, পলাতক পি কে হালদার তার নামে অবৈধ উপায়ে এবং ভুয়া কোম্পানি ও ব্যক্তির নামে প্রায় ৪২৬ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ গড়েছেন। অবৈধ সম্পদের অবস্থান গোপন করতে ১৭৮টি ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে অর্থ লেনদেন করেন পি কে হালদার। তিনি এসব অ্যাকাউন্টে ৬ হাজার ৮০ কোটি টাকা জমা রাখেন। পাশাপাশি এসব অ্যাকাউন্ট থেকে তার নামে ও বেনামে আরও ৬ হাজার ৭৬ কোটি টাকা উত্তোলন করেন। দুদকের তথ্য বলছে, পি কে হালদার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অন্তত ১১ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

পি কে হালদারের অর্থপাচারের সঙ্গে জড়িত ও ঘনিষ্ঠ হিসেবে অন্তত ৭০ জনের একটি তালিকা করা হয়েছিল দেশে। তাদের অনেকেই ভারতে গিয়ে নামের আংশিক পরিবর্তন করে জালিয়াতি করে ভারতীয় নাগরিকত্ব নিয়ে বসবাস করছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

পিঠে ছুরিবিদ্ধ খোকন নিজেই গাড়ি ভাড়া করে আসেন যশোর হাসপাতালে

নিজস্ব প্রতিবেদক : পিঠে বিদ্ধ হওয়া ছুরি নিয়ে নিজেই যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসেছেন...

নায়কদের নামে কোরবানির গরু, আপত্তি জানালেন ওমর সানি

কল্যাণ ডেস্ক : আগামী ১০ জুলাই পবিত্র ঈদুল আজহা। মুসলিম সম্প্রদায় এই ঈদে পশু কোরবানির...

এশিয়ার বাইরের উইকেটের যে কারণে অসহায় মোস্তাফিজ

ক্রীড়া ডেস্ক : মোস্তাফিজুর রহমানের বোলিং দেখে ক্যারিয়ারের শুরুতে অনেকে তাকে বলতেন, 'জোর বল করা...

নতুন ২৭১৬ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত

কল্যাণ ডেস্ক : শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উভয় বিভাগের আওতায় আরও ২ হাজার ৭১৬টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করার...

নওয়াপাড়া বন্দরে অবৈধ তালিকায় ৬০ ঘাট

অবৈধভাবে গড়ে উঠা ঘাটের কারণে কমছে নদীর নাব্যতা ৫ বছরে অর্ধশত জাহাজ ডুবিতে ক্ষতিগ্রস্ত...

মণিরামপুরে জমজমাট কোরবানির পশু হাট

আব্দুল্লাহ সোহান, মণিরামপুর : দক্ষিণবঙ্গের অন্যতম হাট মণিরামপুরের গরু-ছাগলের হাট। প্রতি শনি ও মঙ্গলবার এখানে...