বুধবার, নভেম্বর ৩০, ২০২২

মিষ্টি তৈরির গুড়ে তেলাপোকা

হোটেল রেস্টুরেন্টে কতটা ভয়াবহ পরিবেশ হতে পারে তা চোখে না দেখলে বিশ্বাস করা যায় না। মশা-মাছি তেলাপোকা তো আছেই। এ চিত্র শুধু যশোরের না, সারা দেশের। ২৬ সেপ্টেম্বর যশোর সদর উপজেলার সাতমাইল বাজারের সাতক্ষীরা ঘোষ ডেয়ারিতে মিষ্টি তৈরির গুড়ে তেলাপোকা পাওয়া গেছে।

এছাড়া নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে মিষ্টি তৈরি করায় ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ভাই ভাই হোটেলে নোংরা পরিবেশে এবং অস্বাস্থ্যকর উপায়ে খাবার তৈরি এবং রান্না খাবার ও কাঁচা মাছ-মাংস ফ্রিজে একই সাথে সংরক্ষণ করায় জরিমানা করা হয়েছে ৫ হাজার টাকা। অভিযানকালে জব্দকৃত প্রায় ২০ কেজি গুড় ফেলে দেয়া হয় প্রধানমন্ত্রী হোটেল রেস্তোরায় খাদ্যে মান নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি নির্দেশ দিয়েছিলেন। খাদ্য নিরাপত্তা রক্ষার প্রশ্নে তিনি এ নির্দেশ দেন। কিন্তু তবুও হোটেল রেস্টুরেন্টে মানা হচ্ছে না পরিষ্কার পরিচ্ছনতার নিয়ম।

জনস্বাস্থ্যের জন্য এর চেয়ে মারাত্মক হুমকি আর কি হতে পারে। তেলাপোকার লালা খাওয়া পড়লে নাকি মানুষের হাঁপানি রোগ হয়। বিষয়টা চিকিৎসকরা ভালো বলতে পারবেন। তবে এর চেয়ে আরো কত ভয়াবহ অবস্থা সেখানে সৃষ্টি হয় তা আল্লাহই মালুম। এসব কারখানায় তৈরি খাদ্য-খাবার আমরা খেয়ে তৃপ্তির ঢেকুর তুলছি। আপনজন বন্ধু-বান্ধবদের আপ্যায়ন করছি। সম্মান শ্রদ্ধায় প্রবীণদের এবং আদর ¯েœহে নবীনদের খাইয়ে আত্ম তৃপ্তি অনুভব করছি। কিন্তু আমরা জানছিনে অজান্তে আমরা তাদেরকে নিজ হাতে তুলে বিষ খাওয়াচ্ছি। হোটেল বলতেই চলছে এই মানবতা বিরোধী কর্মকা-। টিস্যু পেপার দিয়ে দই তৈরির ঘটনা এদেশে গণমাধ্যমে প্রচার হয়েছে। কিন্তু অবস্থার পরিবর্তন হচ্ছে না। প্রায় শোনা যায় হোটেলের খাবার খেয়ে বিভিন্ন জায়গায় মানুষ বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে। ডায়রিয়া দেখা দেয়ায় অনেকে মৃত্যুর মুখোমুখি হচ্ছে। কিন্তু দোষীদের বিরুদ্ধে সাড়া জাগানো কোনো শাস্তি হচ্ছে না। এ কারণেই হোটেলের পরিবেশ উন্নয়ন হচ্ছে না।

বিদেশের হোটেলের মেঝেতে একটি তেলাপোকা হেটে বেড়ানোর অপরাধে হোটেলটি তো বন্ধ করে দেয়া হয়ই, তার ওপর সারা জীবনের জন্য ওই হোটেল মালিককে আর হোটেল ব্যবসার পারমিশন দেয়া হয়নি। আমাদেও যশোরে একই দৃশ্যের অবতারণা হলো। এই অবস্থা যদি সারা দেশে হয় তাহলে এই জাতি আর কত দিন সুস্থ থাকবে এটাই আজ ভাববার বিষয়ে পরিণত হয়েছে। মানুষের খাদ্য নিয়ে যারা এই অমানবিক কাজে লিপ্ত তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইন প্রণয়নের ব্যবস্থা আমরা দাবি করছি। সব ক্ষেত্রে ছাড় দেবার মানষিকতা পরিহার করে প্রতিটি অনিয়ম অবহেলা দুর্নীতি অনাচারের বিরুদ্ধে সরকারকে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। নতুবা এ কথা নিশ্চিত করে বলা যায় ধীর প্রতিক্রিয়ায় এ জাতি একদিন পুরোটাই অসুস্থ হয়ে পড়বে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

শ্রীপুরে বীরমুক্তিযোদ্ধার বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ

মাগুরা প্রতিনিধি: মাগুরা শ্রীপুর প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম মিয়া মাজেদুর...

পাইকগাছায় আইন শৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

পাইকগাছা প্রতিনিধি :পাইকগাছা উপজেলা আইন শৃংখলা ও মাসিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে...

মোরেলগঞ্জে শেখ রাসেল শিশু পার্ক উদ্বোধন

মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি: বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে শিশু বিনোদনের শেখ রাসেল শিশু পার্কের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছেন বাগেরহাট...

মহেশপুরে ভাতিজার হাতে চাচি খুন

মহেশপুর প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের মহেশপুরে জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ভাতিজার মারপিটে চাচি রিজিয়া খাতুন...

মহেশপুরে একাধিক মামলার আসামি টিটনকে কুপিয়ে হত্যা

মহেশপুর প্রতিনিধি: মহেশপুর উপজেলার ধানহাড়িয়া গ্রামে জীবন চৌধুরী ওরফে টিটন (৩০) নামে একজনকে কুপিয়ে...

অভয়নগরে দুই মাদক বিক্রেতা আটক

অভয়নগর প্রতিনিধি: অভয়নগরে এপিবিএন পুলিশের অভিযানে ৫শ’ গ্রাম গাঁজা ও এক বোতল ফেনসিডিল ও...