শনিবার, নভেম্বর ২৬, ২০২২

যশোরে সোনা চোরাচালানে দুজনের যাবজ্জীবন, দুর্নীতি মামলায় একজনের ১০ বছর

নিজস্ব প্রতিবেদক :

যশোরে সোনা চোরাচালান মামলায় দু’জনের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদ- ও অর্থদ- দিয়েছে আদালত। একইদিনে একটি দুর্নীতি মামলায় অপর এক ব্যক্তির ১০ বছরের কারাদণ্ড ও অর্থদ-ের আদেশ দেয়া হয়েছে। সাজাপ্রাপ্ত তিন আসামির মধ্যে দু’জন আটক ও একজন পলাতক রয়েছে।

বৃহস্পতিবার সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ ইখতিয়ারুল ইসলাম মল্লিক একটি সোনা চোরাচালান মামলায় দুই আসামির যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদ- ও প্রত্যেকের ৫০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আদালতের পিপি এম ইদ্রিস আলী।

সোনা চোরাচালান মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলো, রাজবাড়ী সদর উপজেলার হোগলাডাঙ্গী গ্রামের আব্দুল গণি মিজির ছেলে হোসেন মিজি ও একই জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার খালখোলা গ্রামের বাহাদুর মন্ডলের ছেলে আক্তার হোসেন মন্ডল।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০২১ সালের ২০ মার্চ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে যশোর সদর উপজেলার বাহাদুরপুর এলাকায় শরীয়তপুর থেকে বেনাপোলগামী ফেম পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস থামিয়ে তল্লাশি চালিয়ে হোসেন মিজি ও আক্তারকে আটক করে ৪৯ বিজিবির একটি টহলদল। পরে তাদের পায়ের স্যান্ডেলে লুকানো অবস্থায় ১৩টি সোনারবার উদ্ধার হয়। যার ওজন চার কেজি ৫৪০ গ্রাম। এ ঘটনায় যশোর বিজিবি ব্যাটালিয়নের নায়েক সোহাগ হোসেন কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত করে কোতোয়ালি থানার এসআই আবু হেনা মিলন ২০২১ সালের ২১ এপ্রিল আদালতে চার্জশিট জমা দেন। বৃহস্পতিবার ওই দুই আাসমির উপস্থিতিতে এ মামলার রায় ঘোষণা করে আদালত। আটকের পর থেকেই আসামিরা যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি রয়েছেন।

এদিকে, একটি দুর্নীতি মামলায় স্পেশাল জজ (জেলা ও দায়রা জজ) সামছুল হককে ১০ বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদ-ের আদেশ দিয়েছেন। একই সাথে দুর্নীতির মাধ্যমে আত্মসাৎ করা ১৬ লাখ ১৪ হাজার ৮শ’৬০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুদকের পিপি সিরাজুল ইসলাম।

সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি প্রশান্ত মন্ডল খুলনা জেলার আড়ংঘাটা উপজেলার রংপুর গ্রামের কালীপদ মন্ডলের ছেলে। প্রশান্ত মন্ডল নড়াইল গ্রামীণ ব্যাংকের সাবেক সিনিয়র কেন্দ্র ব্যবস্থাপক ও দ্বিতীয় স্বাক্ষরকারী।

আদালত সূত্র জানায়, তিনি গ্রামীণ ব্যাংকে চাকরিরত অবস্থায় তার বিরুদ্ধে ব্যাংকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে। বিষয়টি নজরে আসে দুদকের। প্রাথমিকভাবে এ ঘটনার সত্যতা যেয়ে আত্মসাতের অভিযোগে ২০১৫ সালের ৩০ মার্চ নড়াইল সদর থানায় মামলা করেন সমন্বিত জেলা কার্যালয় যশোরের সহকারী পরিচালক হাফিজুল হক। পরে মামলাটি তদন্ত করেন সহকারী পরিচালক শহীদুল ইসলাম মোড়ল। ১৬ লাখ ১৪ হাজার ৮৬০ টাকা আত্মসাত করা হয়েছে বলে দুদকের তদন্তে উঠে আসে। ২০১৬ সালের ৩০ নভেম্বর প্রশান্ত মন্ডলের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেন দুদক কর্মকর্তা শহীদুল ইসলাম মোড়ল। বৃহস্পতিবার আদালত এ মামলার রায় ঘোষণা করেন। আসামি পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানার আদেশ দেয়া হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

গোপনে ‘বিয়ে’, তিক্ত সম্পর্ক এড়াতে গিয়ে বিতর্কে! রাশ্মিকা

কল্যাণ ডেস্ক: সাক্ষাৎকারে নিজের সাফল্যের কাহিনি শোনাতে গিয়ে অতীত প্রযোজনা সংস্থার নাম নেননি দক্ষিণের...

গুমাই বিলে কিসের টানে এসেছে হাজার হাজার টিয়া পাখি

কল্যাণ ডেস্ক: শস্যভান্ডার হিসেবে চট্টগ্রামের গুমাই বিলের পরিচিতি আছে। কথিত আছে, এই বিলে উৎপাদিত...

চীনে ধর্ষণের দায়ে ১৩ বছরের কারাদণ্ড পপ তারকার

কল্যাণ ডেস্ক: চীনা বংশোদ্ভূত কানাডিয়ান পপ তারকা ক্রিস উকে ১৩ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন চীনের...

যে সাত কারণে প্রতিদিন কমলা খাবেন

কল্যাণ ডেস্ক: শীতকালে বাজারে প্রচুর কমলা পাওয়া যায়। কিন্তু সুস্বাধু এই ফলের গুরুত্ব না...

ডাটা সেন্টার হচ্ছে মহাকাশে

কল্যাণ ডেস্ক: পৃথিবীতে নয়, একেবারে মহাকাশে ডাটা সেন্টার প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এই উদ্যোগ...

শুধু সর্দি-কাশি নয়, ডায়াবেটিস থেকেও মুক্তি দিতে পারে মধু

কল্যাণ ডেস্ক: শীতে সর্দি-কাশি থেকে বাঁচতে মধু খাওয়ার রেওয়াজ আজও আছে। সকাল বেলায় তুলসী...