Thursday, July 7, 2022

যশোরে চার মারামারি ঘটনায় পৃথক মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে চারটি মারামারি ঘটনায় থানায় পৃথক মামলা করা হয়েছে। সদর উপজেলার বাহাদুরপুর ও ঝাউদিয়া গ্রামে এই ঘটনাগুলোর পাল্টাপাল্টি মামলায় ২০জনকে আসামি করা হয়েছে।

ঝাউদিয়া গ্রামের আব্দুল ওহাবের মামলার চারজন আসামি হলো হাফিজুর রহমান, সুজন, সজল ও নুর নাহার। হাফিজুর রহমানের পাল্টা মামলায় তিনজনের মধ্যে আব্দুল ওহাব, মহিমা বেগম, রিম্পা খাতুন। বাহাদুরপুর গ্রামের আসাদুজ্জামাওেনর মামলায় বাবু, বাপ্পি, ফয়সাল, মিন্টু, নার্গিস ও রাবেয়া বেগম। এর পাল্টা বাবুর মামলায় আব্দুল কুদ্দুস শামিম, সোবাহান আলী, বিপ্লব, শামিম হোসেন, মইনুল, মনিরা বেগম ও শিমুল হোসেন।

ঝাউদিয়া গ্রামের আব্দুল ওহাবের মামলায় বলেছেন, আসামিরা সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। আসামি হাফিজুর রহমান আপন ভাই। পৈত্রিক জমিতে থাকা তাল গাছ নিয়ে বিরোধের সৃষ্টি হয়। ৬টির মধ্যে দু’টি গাছের তাল আসামি হাফিজুর ইতিপূর্বে কেটে নিয়েছে। গত ৩ জুন বাদী অন্য দু’টি গাছের তাল কাটতে গেলে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে বাদীকে এলোপাতাড়ি মারপিট করে। এসময় ঠেকাতে গিয়ে আব্দুল ওহাবের স্ত্রী মহিমা বেগম ও মেয়ে রিম্পা খাতুন এলে তাদেরও মারপিট করে। এসময় তার মেয়ের গলায় থাকা ৮০ হাজার টাকা মূল্যের স্বর্ণের চেইন ও ঘরে থাকা ৪৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।
অপরদিকে হাফিজুর রহমান পাল্টা মামলায় বলেছেন, আসামি আব্দুল ওহাব তার ভাই। কিন্তু তিনি ভূমিদস্যু। জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে তার সাথে দীর্ঘদিন শত্রুতা চলে আসছে। গাছের ডাল পাড়াকে কেন্দ্র করে গত ৩ জুন বাদীকে মারপিট করে। তার স্ত্রীর গলায় থাকা ৪০ হাজার টাকা স্বর্ণের চেইন ও ছেলে ৭ হাজার ৭শ’ টাকার মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়।
বাহাদুরপুর গ্রামের আসাদুজ্জামান মামলায় বলেছেন, আসামিরা এলাকার সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, খুনি ও পরসম্পদ লোভী। এই কারণে তাদের সাথে বাদীর দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। গত ৩ জুন সকালে বাদীর ভাই কুদ্দুসের বাড়ির প্রাচীর নির্মাণকালে আসামিরা অতর্কিতভাবে বাড়িতে এসে হামলা করে। এসময় তার ভাইয়ের কাছে থাকা ১০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।
অপরদিকে একই গ্রামে বাবুর দায়ের করা মামলায় বলা হয়েছে, আসামিদের সাথে তাদের জমিজমা নিয়ে পূর্ব বিরোধ চলে আসছিল। তারই জের ধরে গত ৩ জুন সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বাড়িতে নির্মাণকাজ চলাকালে আসামিরা জোর পূর্বক সেখানে বাদীর জমির মধ্যে প্রাচীর নির্মাণের কাজ শুরু করে। ঠেকাতে গেলে বাদী বাবু, তার ছেলে ফয়সাল ও স্ত্রীকেও মারপিট করে। এসময় তার স্ত্রীর গলায় থাকা ৩৫ হাজার টাকা মূল্যের একটি স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

ঈদের আগে আনন্দধারায় শিক্ষক-কর্মচারীরা

এমপিওভুক্ত যশোরের ৬০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিজস্ব প্রতিবেদক :  সরকার ২ হাজার ৫১টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে নতুন করে এমপিওভুক্ত ঘোষণা...

নতুন রোটারী বর্ষ উদযাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক :  রোটারী ডিস্ট্রিক-৩২৮১-এর রোটারী বর্ষের সূচনা উপলক্ষে বুধবার বিকেলে যশোর শহরের বর্ণাঢ্য র‌্যালি...

যশোর বাস মালিক সমিতির নির্বাচন : মনোনয়নপত্র কিনেই ভোটযুদ্ধে প্রার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক : মনোনয়নপত্র কিনেই ভোটযুদ্ধে নেমে পড়েছেন যশোর বাস মালিক সমিতির নির্বাচনের প্রার্থীরা। শুরু...

যশোরে বিভিন্ন সহিংসতার ঘটনায় ১৫ জন আসামি

নিজস্ব প্রতিবেদক যশোর সদর উপজেলার চার এলাকায় সহিংসতার ঘটনায় কোতয়ালি থানায় আলাদা চারটি মামলা করা...

সহসা কমছে না লোডশেডিং

ঢাকা অফিস গ্যাস সংকট চলছে তাই বিদ্যুৎ উৎপাদনে বিঘœ ঘটাছে। দেশজুড়ে চলছে লোডশেডিং চলছে। কবে...

অপতৎপরতা রুখতে একসাথে কাজ করতে হবে : প্রতিমন্ত্রী স্বপন

মণিরামপুর প্রতিনিধি :  পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি বলেছেন, শেখ হাসিনা...