Friday, July 1, 2022

যশোরে বোরোর বীজতলা তৈরিতে কোমর বেধেছেন চাষিরা

সালমান হাসান
আমন ধান কাটা এখনও শেষ হয়নি। ঝাড়া-মাড়াইয়ের কাজও চলছে জোর কদমে। ঘরে ফসল তোলার ব্যস্ততা চাষিদের। যশোরে এরই মধ্যে অনেকে কোমর বেধে বীজতলা তৈরিতে নেমেছেন। বোরোর আগাম চাষে আগ্রহীরা চারা তৈরির জন্য বীজ বপন শুরু করেছেন।

খুব সকাল, দুপুর ও পড়ন্ত বিকেলে ধানের বীজতলা তৈরির এই দৃশ্য চোখে পড়ছে। বিল, বাঁওড় ও নদীর পাড়ে ধানের চারার ক্ষেত প্রস্তুত চলছে। ধান ক্ষেতের বিভিন্ন কোনেও চারাতলা করছেন চাষিরা।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের যশোর কার্যালয় সূত্র জানায়, যশোরের আট উপজেলায় চলতি মৌসুমে ১ লাখ ৫৭ হাজার ৮৮৫ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ হয়েছে। ইতিমধ্যে চাষিদের অনেকে বীজতলা তৈরিতে নেমে পড়েছেন।

চাষিরা বলছেন, প্রচুর শীত ও কুয়াশায় ধানের চারার ক্ষতি হয়। তাই এখনই বীজ তৈরির উপযুক্ত সময়। কারণ শীত এখনও হালকা গোছের। সামনে পুরোপুরি শীত। ডিসেম্বরে দেশে প্রচন্ড ঠান্ডা পড়ে ও শৈত্য প্রবাহও হয়। আর এমন আবহাওয়া বীজতলার ক্ষতি করে। তাই বীজতলা তৈরিতে দেরি করতে চান না।

বোরোর আগাম চাষের জন্য ভালো বীজ সংগ্রহে নেমেছেন চাষিরা। চাষ দিয়ে জমি তৈরি করছেন। সেচের পর নরম কাঁদামাটি সমান করছেন। তারপর সংগৃহীত বীজ মুঠোভর্তি করে ছিটিয়ে দিচ্ছেন। যশোর সদরের দেয়াড়া ইউনিয়নের এড়েন্দায় বুকভরা বাঁওড়ের পাড়ে বীজতলা তৈরি করছিলেন হামিদুল ইসলাম।

তিনি জানান, প্রচন্ড শীত ও কুয়াশায় বীজতলা নষ্ট হয়ে যায়। অতীত এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে আগেভাগেই জমি প্রস্তুত করেছেন। এখন সেখানে বীজ ছিটিয়ে দিচ্ছেন। ভালো মানের বীজ কিনেছেন। যাতে পুষ্ট চারা উৎপাদন হয়।

যশোরের বিভিন্ন এলাকায় সার বীজের দোকানে চাষিদের আনাগোনা বেড়েছে। বীজ বপনের এখন বেশ কিছু সময় হাতে থাকলেও আগেভাগেই চারা তৈরিতে তাদের আগ্রহ। প্রচন্ড শীত পড়লে ভালো চারা উৎপাদন হয় না। যার জন্য চাষিরা ঝুঁকি নিতে চাইছেন না।

সদর উপজেলার হরিণার বিলে ফসলি জমিতে এক শতক জমিতে বীজতলা তৈরি করেছেন কৃষক তরিকুল ইসলাম। তিনি জানান, শৈত্য প্রবাহের কারণে কয়েবার তার বীজতলা নষ্ট হয়েছে। এতে তাকে চারার সংকটে পড়তে হয়েছিলো। তাই একটু আগাম চারার বীজ বপণ করেছেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর যশোর কার্যালয়ের উপ-পরিচালক বাদল চন্দ্র বিশ্বাস জানান, শীতকালীন কোন ফসলের চাষবাদ যারা করবেন না তারা ইতিমধ্যে বীজতলা তৈরির কাজ শুরু করেছেন। তিনি আরও জানান, বেশি শীতে চারা দুর্বল হয়ে পড়ে। কিন্তু শীত কম থাকলে পুষ্ট ও শক্তিশালী চারা গজায়। এই সুবিধার দিকটি চিন্তা করেও অনেকে কম শীতে বীজতলা তৈরি করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

হতদরিদ্রদের চালের দামও বাড়ল ৫ টাকা

ঢাকা অফিস: খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় দেশের ৫০ লাখ হতদরিদ্র মানুষের কাছে বিক্রি করা চালের...

নির্দলীয় সরকার নিয়ে উত্তপ্ত সংসদ

ঢাকা অফিস: বৃহস্পতিবার সংসদে নির্বাচন ব্যবস্থা নিয়ে তুমুল বিতর্ক হয়েছে। বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা...

শাহীন চাকলাদারকে ছাড়লেন একদল নেতা!

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক: যশোরে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে আবারও আলোচনায় গ্রুপ বদলের নেতাকর্মীরা। বিভিন্ন মাধ্যম থেকে...

বাজেট পাস আজ কার্যকর

ঢাকা অফিস: চোখে পড়ার মতো বড় কোনও সংশোধনী ছাড়াই পাস হয়েছে নতুন ২০২২-২৩ অর্থবছরের...

ঈদুল আজহা ১০ জুলাই

ঢাকা অফিস: বাংলাদেশের আকাশে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা গেছে। আগামী ১০ জুলাই...

পদ্মা সেতু : ইউনূসের বিরুদ্ধে অভিযোগের তথ্য উইকিলিকসে

ঢাকা অফিস: পদ্মা সেতুতে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়ন বাতিলের নেপথ্যে যার নাম সবার শীর্ষে, তিনি নোবেল...