সোমবার, অক্টোবর ৩, ২০২২

যশোর হাসপাতালের সেই দরপত্র বাতিল চেয়ে আরও সাত ঠিকাদারের আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক :

যশোর আড়াইশ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের জন্য মেডিকেল সার্জিক্যাল রি-এজেন্ট (এমএসআর) কেনাকাটার সাড়ে ৮ কোটি টাকার দরপত্র প্রক্রিয়া বাতিলের দাবি জানিয়েছেন বঞ্চিত আরো সাত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। তারা অভিযোগে উল্লেখ করেছেন, প্রভাবশালী সন্ত্রাসী গ্রুপ পুলিশের উপস্থিতিতে আমাদের সিডিউল কেড়ে নিয়ে ছিড়ে ফেলেছে। যেকারণে আমরা দরপত্রে অংশ নিতে পারেনি। এজন্য নতুন করে দরপত্র আহ্বানের দাবি জানানো হয়েছে। তবে এ বিষয়ে সাড়া দেয়নি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আক্তারুজ্জামানের সভাপতিত্বে দরপত্র মূল্যায়ণ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। এদিন সিদ্ধান্ত ছাড়াই দরপত্র মূল্যায়ন কমিটির সভা শেষ হয়েছে।

গত ১২ সেপ্টেম্বর হাসপাতালের সাড়ে ৮ কোটি টাকার টেন্ডারে (দরপত্র) অংশ নিতে গিয়ে হামলার শিকার হন মাগুরার দুটি সরবরাহকারী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা। দুর্বৃত্তরা তাদের মারধর করে সাড়ে ৮ কোটি টাকার দরপত্রের সিডিউল ছিনতাই করে নেয়। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হলেও ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

এ বিষয়ে যশোর জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আক্তারুজ্জামান বলেন, সাত সদস্যের দরপত্র মূল্যায়ণ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সার্বিক বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে চূড়ান্ত কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। আরও কয়েক দফায় সভা হতে পারে। সোমবার দরপত্র ছিনতাই ও মারপিটের ঘটনায় গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। বঞ্চিত সাতটি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান পুনরায় টেন্ডার (রিটেন্ডার) আহ্বানের দাবি জানিয়ে লিখিত অভিযোগ করেছেন। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ দেখবেন। তবে তিনি অভিযোগকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর নাম প্রকাশ করতে রাজি হননি।

আক্তারুজ্জামান বলেন, দরপত্র মূল্যায়নের গাইড লাইনে বলা আছে, একটি দরপত্র জমা পড়লেও বিবেচিত হতে পারে। যদি দরপত্রের শর্তপূরণ ও বাজার দরের চেয়ে কম দামে দরপত্র দাখিল করে। আবার বলা আছে দরপত্র প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হতে হবে। সেই হিসেবে ১৮২টি সিডিউল বিক্রি হলেও জমা পড়েছে ১৩টি। এটা তো সংখ্যা অনেক কম। মূল্যায়ণ কমিটি পরবর্তীতে সভা করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিবে।’

জানা যায়, যশোর জেনারেল হাসপাতালে ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের মেডিকেল সার্জিক্যাল রিকোজিটের (এমএসআর) সাড়ে ৮ কোটি টাকার টেন্ডার সিডিউল বিক্রি হয় ৬টি গ্রুপের মোট ১৮২টি। ১২ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত টেন্ডার দাখিল হয়। এ সময় টেন্ডার দাখিল গেলে মাগুরার দুই ঠিকারদারকে মারপিট করে ৬ কোটি টাকার টেন্ডার কেড়ে নেয় যশোর শহরের সন্ত্রাসীরা। শেষ পর্যন্ত সিন্ডিকেটের ১৩টি টেন্ডার জমা পড়ে। এরমধ্যে যশোর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে ৬টি এবং জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের কার্যালয়ে ৭টি টেন্ডার জমা হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

জাতীয় ক্রাশ রাশমিকার জীবনে টার্নিং পয়েন্ট ‘পুষ্পা’

বিনোদন ডেস্ক: তেলেগু ‘পুষ্পা: দ্য রাইজ’ সিনেমাতে অভিনয় করে ভারতজুড়ে খ্যাতি পেয়েছেন রাশমিকা মান্দানা।...

পাঁচ ঘরোয়া উপায়ে দূর করুন অ্যাসিডিটি

কল্যাণ ডেস্ক: অ্যাসিডিটির সমস্যা নেই এমন মানুষ খুব কমই আছে। নিয়মিত ওষুধ তো খান,...

যশোরের ‘শীর্ষ সন্ত্রাসী’ ঢাকায় গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরের ঝিকরগাছা এলাকার ‘শীর্ষ সন্ত্রাসী’ নুরুজ্জামান বাবুকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।...

ব্যাটিং ব্যার্থতায় পাকিস্তানের কাছে হারলো বাংলাদেশের মেয়েরা

ক্রীড়া ডেস্ক : থাইল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়ে ঘরের মাঠে নারী এশিয়া কাপ শুরু করেছিল বাংলাদেশ। তবে...

অতিরিক্ত শরীরচর্চা কি হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ায়?

কল্যাণ ডেস্ক: সুস্থ থাকতে ওজন কমানো জরুরি। শরীরের বাড়তি ওজন ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, উচ্চ...

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী

কল্যাণ ডেস্ক : জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে অংশগ্রহণ শেষে ঢাকার পথে রওয়ানা হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী...