শ্যামনগরের কৈখালিতে রাস্তা সংস্কার করবে কে জানেনা এলাকাবাসী!

সাতক্ষীরা

শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি
শ্যামনগর উপজেলার কৈখালী ইউনিয়নের সীমান্ত এলাকার নৈকাটি ৮ নং ওয়ার্ডের কালিন্দী নদীর বেড়িবাঁধের রাস্তায় দীর্ঘদিন ধরে এক কিলোমিটার জুড়ে বালু ফেলে রেখেছে জাইকা ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের লোকজন। স্থানীয়দের ভোগান্তি চরমে উঠেছে। দেখার কেউ নেই।

দীর্ঘদিন ধরে যারা বেড়িবাঁধের রাস্তায় বালু ফেলে রেখেছে তাদের খুঁজে পাচ্ছে না এলাকাবাসী। দীর্ঘদিনের এই সমস্যা নিরসনের কথা কাকে জানাবে সাধারণ মানুষ বুঝে উঠতে পারছে না। ইউপি চেয়ারম্যান বা ইউপি সদস্য কেউ খোঁজ রাখে না। সমস্যা সমাধানের দায়িত্ব কার? কে কার জন্য কাজ করে প্রশ্ন সচেতন মহলের। এলাকায় নির্বাচনী হাওয়া লাগায় উন্নয়নের কথা বলছে প্রার্থীরা। অথচ সামান্য রাস্তার বালু সরানোর জন্যে কাউকে পাওয়া যাচ্ছে না কেন? এই প্রশ্ন সাধারণ মানুষের। আর কত দিন ভোগান্তির শিকার হতে হবে এলাকাবাসীকে?
ঘুমিয়ে কাটাচ্ছে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ। কে কার ঘুম ভাঙাবে? চলেছ সমালোচনার ঝড়। বালু ফেলে রাখার ফলে পায়ে হেটেও এ পথে চলাচলের কোন সুযোগ নেই। অনেক কষ্ট করে স্কুলগামী ছাত্রছাত্রীরা চলাচল করছে। চোরাচালানের রুট হওয়ায় স্থানীয় বিজিবিদেরও টহল দিতে মারাত্মক অসুবিধা হচ্ছে। সব মিলিয়ে সীমান্তের এই বেড়িবাঁধের রাস্তা থেকে বালুগুলো অপসারণের ও রাস্তা সংস্কারের জোর দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় ভুক্তভোগী এলাকার মানুষ।

এ বিষয়ে পাউবোর কর্মকর্তা তনময় হালদারের সাথে কথা হলে তিনি জানান দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে নিয়োগ পেয়েছে জাইকা। সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটি বর্তমান কাজ ফেলে রেখে পালিয়ে গেছে কিন্তু আমরা যোগাযোগ করলে তারা কিছু দিনের ভেতরে কাজ শুরু করবে বলে জানিয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে