Sunday, May 29, 2022

সংবাদপত্রের পাতা থেকে

সাজেদ রহমান
দৈনিক যুগান্তরের রিপোর্টার অনিল ভট্টাচার্য ১২ ডিসেম্বর একটি রিপোর্ট পাঠান। যা ১৩ ডিসেম্বর ‘যশোরে আতঙ্কের চিহ্ন নেই’ শিরোনামে প্রকাশিত হয়। রিপোর্টটি ছিল এ রকম, ‘এখনো সম্ভবত সাড়ে ৮ মাসের স্মৃতি কাটেনি। কিন্তু আজকে সকালবেলা বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে যশোর শহর পর্যন্ত জনতা দেখে মনে হচ্ছিল, নবজাতক বাংলাদেশ ধীরে ধীরে জেগে উঠছে। জীবনযাত্রা এখনো পুরো স্বাভাবিক হয়নি। সব দোকানপাট খোলেনি। অনেক বাড়ি তালা বদ্ধ রয়েছে। কিন্তু কোথাও আতঙ্কের চিহ্ন নেই। যশোর রোডের ভারতীয় জওয়ানদের পাশ দিয়ে বাংলাদেশের মেয়েদের চলাফেরা করতে দেখলাম। খানসেনাদের উপস্থিতির সময় এটি সম্ভব ছিল না বলে জনসভাতেই অস্থায়ী প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নজরুল ইসলাম মন্তব্য করেছিলেন। সরকারিভাবে শরণার্থীদের বাংলাদেশে ফিরে যাবার জন্য এখনও উৎসাহ দেওয়া হয়নি। তা সত্ত্বেও মানুষ ফিরতে শুরু করেছেন। ঝিকরগাছায় একজন ডাক্তার আজকে ফিরছেন বনগাঁ থেকে। উনি হিন্দু। বৈঠকখানায় বসে বললেন, বাড়ি ফেরত পেয়েছি। ১৭ হাজার টাকার ওষুধ লুট হয়েছে। এখনও মেয়েদের আনিনি। এই রকম আরও কয়েকটি পরিবারকে রাস্তায় দেখলাম। ওরা ফিরে যাচ্ছেন। যশোর শহরের দোকানপাট খুলতে শুরু করেছে। জেলা ম্যাজিস্ট্রেট হয়েছেন একজন তরুণ অফিসার ওয়ালিউল ইসলাম। ওঁর কাছে শুনলাম শহরের বিহারীদের অধিকাংশই পালিয়েছে। প্রায় দেড় হাজারের মতো রাজাকার বিহারী এবং দালালদের যশোর জেলে আটক রাখা হয়েছে। গাড়ি-ঘোড়া খুব কম। অধিকাংশ খান সেনারা নষ্ট করে গিয়েছে। শহর ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হচ্ছে। জনসভায় প্রথম দিকে ছিল চাপা মনোভাব। সভা শেষ-সেই জনতাই যেন জোয়ার এলো। জয়বাংলা ধ্বনিতে শহর তখন ফেঁটে পড়ছিল। খান সেনাদের অত্যাচারের কাহিনী মুখে মুখে। ঝিকরগাছায় একজন ইটালিয়ান পাদ্রী বিদেশি সাংবাদিকদের একটা ধারাবাহিক বিবরণ দিলেন। তার মোদ্দা কথা হচ্ছে সৈন্যরা দারুন অত্যাচার করেছে। প্রথমদিকে নির্দেশ ছিল হিন্দুদের তাড়াও। কিন্তু পরে শরণার্থী সমস্যার গুরুত্ব বিবেচনা করে বোধ হয় কিছুটা সংযম রক্ষার চেষ্টা হয়। কিন্তু তখন অবস্থা আয়ত্বের বাইরে।’

‘নড়াইলের পথে নতুন নৃত্য’ শিরোনামে ১৩ ডিসেম্বর যুগান্তর পত্রিকায় একটি রিপোর্ট প্রকাশিত হয়। বিশেষ প্রতিনিধি অনিল ভট্টচার্যের এই রিপোর্টটি হলো-‘যশোর থেকে নড়াইল যাবার পথে আজকে নতুন দৃশ্য চোখে পড়ল। দলে দলে মুক্তি বাহিনী আর মুজিব বাহিনীর ছেলেরা রাইফেল, স্টেনগান নিয়ে এই একুশ মাইল রাস্তা যেন জয় করতে চলেছে। প্রশ্ন করতে একটি ছেলে বলল, নড়াইল মাত্র দুইদিন আগে রাজাকার মুক্তি হয়েছে। তাই আমরা নড়াইলের পথে আরও অনেক জায়গা যাবো।

কলকাতা থেকে যশোর হয়ে নড়াইল যেতে মাত্র ৪ ঘন্টা সময় লেগেছিল। নড়াইলের রাস্তার কোন ক্ষতি হয়নি। সবটাই পিচ ঢালা। চামরুলের উপর সিমেন্ট কংক্রিটের ব্রিজ। এটি এবং অন্যান্য ছোট ব্রিজগুলোর প্রত্যেকটির পাশে পাক বাহিনীর বাংকার তৈরি করা হয়েছিল। কিন্তু পালানোর সময় ব্রিজগুলো উড়িয়ে দেবার সময় তাদের ছিল না। রাস্তায় যেতে যেতে লক্ষ্য করছি দু’পাশে হিন্দুদের বাড়ি ঘরগুলো একেবারে ধ্বংসস্তুপ। কিন্তু সেগুলোতে কেউ বসবাস করছে না। নড়াইল মহকুমার সদর এবং রুপগঞ্জ হচ্ছে দুইটি প্রধান এলাকা। মহকুমা শহরে দেখলাম মুক্তি বাহিনী আর মুজিব বাহিনীরা ছেলেরা এলাকার খবর নিচ্ছে। রাজাকার ও দালালদের সম্পর্কে অনুসন্ধান করছে। সদরে হিন্দুদের দোকানগুলো লুট করা হয়েছে। ফেরিঘাটের পাশের হিন্দু দোকানগুলো পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। মুজিব বাহিনীর ছেলেরা এমন খোঁজ করছে কারা আগুন দিয়েছিল? সদরের দোকান পাট সব খোলেনি। তবে অবস্থা স্বাভাবিক হতে চলেছে মনে হলো। রুপগঞ্জেই বিখ্যাত নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজ আর রুপগঞ্জেই হাট। কলেজ ও স্কুল বাড়ি আস্ত আছে। কিন্তু স্থানীয় শ্রীরামকৃষ্ণ আশ্রম পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। স্থানীয় হিন্দুরা সবাই দেশত্যাগী হননি। তারা বললেন, রুপগঞ্জে লুটপাট হয়েছে। কিন্তু হতাহতের ঘটনা কম। নড়াইল জমিদার বাড়ি ধ্বংসস্তুপে পরিনত। ….বাজারের দোকান পাট অধিকাংশ খোলা। ক্রেতার সংখ্যা কম। রুপগঞ্জের পাশ দিয়ে চিত্রা নদী বয়ে গিয়েছে। কিন্তু চিত্রা এখন অনেক শীর্ণকায়।
-জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

দুই বছর পর যাত্রা শুরু করলো ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’

আইয়ুব হোসেন পক্ষী,বেনাপোল প্রতিনিধি: করোনার জেরে দু’বছর ধরে বন্ধ ছিল খুলনা-কলকাতা বন্ধন এক্সপ্রেস। তবে...

ছাত্রনেতা শাহীর মুক্তির দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে খোলা চিঠি 

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি খোলা চিঠি লিখেছেন যশোর...

খুলনা-কলকাতা রুটে বন্ধন এক্সপ্রেস আজ ফের চালু

নিজস্ব প্রতিবেদক: আজ রোববার থেকে ফের কলকাতা-খুলনা রুটে ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’ রেল চলাচল শুরু হবে।...

রসুনের গায়ে আগুন!

সপ্তাহের ব্যবধানে কেজিতে বেড়েছে ৫০ টাকা ক্ষুব্ধ ক্রেতা, স্বস্তিতে নেই কিছু বিক্রেতাও জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক: এবার ভোক্তার...

আনারসের পাতা থেকে সুতা সৃজনশীল কাজে পৃষ্ঠপোষকতা প্রয়োজন

অপার সম্ভাবনার দেশ বাংলাদেশ। কিন্তু হলে কি হবে। সম্ভবনা থাকলেই তো আর আপনা আপনি...

দড়াটানার ভৈরব পাড়ে মাদকসেবীদের নিরাপদ আঁখড়া

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোর শহরের ঘোপ জেলরোড কুইন্স হাসপাতালের পূর্ব পাশে ভৈরব নদের পাড়ে মাদকসেবীদের...