বুধবার, নভেম্বর ৩০, ২০২২

সরকারি চাল নিয়ে ভোটের রাজনীতি

দল মত নির্বিশেষে দরিদ্র মানুষের মাঝে নামমাত্র মূল্যে সরকার চাল বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং তা ২০১৬-১৭ সাল থেকে শুরু হয়েছে। কিন্তু একশ্রেণির মতলববাজ লোক এই চাল নির্বাচনী অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে। এখানে জাতীয় নির্বচন নয়। আওয়ামী, বিএনপি, জামায়াত অথবা অন্য কোন দলের প্রার্থী বিষয়টি মুখ্য নয়। স্থানীয় নির্বাচনে মেম্বর-চেয়ারম্যান নির্বাচনে কেউ ভোট না দিলে তার নাম বাদ পড়ছে। এর শিকার হচ্ছে ক্ষমতাসীন দলের সমর্থকরাও। যশোরের অভয়নগর উপজেলায় চলিশিয়া ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির তালিকা থেকে ৬২ জন হতদরিদ্রের নাম বাদ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগীরা উপজেলা খাদ্যবান্ধব কমিটির সদস্য সচিব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের নিকট আবেদন করেছেন। এর আগে একইভাবে বাঘুটিয়া ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডে ৪৩ জনকে তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয়। যারা বাদ পড়েছেন তারা যে বিত্তবান তা নয়। এর মধ্যে অনেকেই আছেন দিন মজুরির কাজ করেন। অভিযোগ উঠেছে এখানে চলছে ভোটের রাজনীতি। ভোট না দেয়ার কারণে কার্ড বাতিলের ঘটনা ঘটেছে।

পল্লী অঞ্চলের দরিদ্র জনসাধারণকে স্বল্পমূল্যে খাদ্য সহায়তা দিতে ২০১৬-১৭ অর্থবছর থেকে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের আওতায় খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির মাধ্যমে ১০টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি কর্মসূচি শুরু হয়। বিধবা, বয়স্ক, পরিবারের প্রধান নারী, নি¤œ আয়ের পরিবার প্রধানদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ১০ টাকা কেজি দরে চাল দেয়ার জন্য একটি তালিকা রয়েছে। খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে উপকারভোগীর তালিকা হতে মৃত, স্বচ্ছল, ভুঁয়া এবং এলাকা ছেড়ে চলে যাওয়া ব্যক্তিদের পরিবর্তে প্রকৃত হতদরিদ্রকে অন্তর্ভুক্ত করার নিয়ম রয়েছে।

প্রতি বছরের মার্চ, এপ্রিল, সেপ্টেম্বর, অক্টোবর ও নভেম্বর মোট পাঁচ মাস খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি চলে। ১০ টাকা দরে ৩০ কেজি করে চাল বিক্রি করা হতো। গত বাজেটে এর দাম বাড়িয়ে ১৫ টাকা কেজি করা হয়। সে অনুসারে ভোক্তারা মাসের হিসাবে ৩০ কেজি চাল পাবেন। প্রতি কেজি ১৫ টাকা দরে। গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে সারাদেশে ১৫ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি শুরু হয়েছে।

সরকার চাচ্ছে দেশের যেন উপোষ থাকে না। এ ক্ষেত্রে কে কোন রাজনৈতিক দল সমর্থন কওে তা দেখার বিষয় নয়। কিন্তু সরকারি এ নীতিকে পদদলিত করে নিজেদের স্বার্থ হাসিল করে চলেছে। আর এর জন্য যে দুর্গন্ধ ছড়াছে তা সরকারের গায় মাখছে বেশি। এ জন্য যেখানেই এ ঘটনা ঘটুক না কেন তা খোঁক করে বের করে সংশ্লিষ্টদেও কঠোর শাস্তি দিতে হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

অভয়নগরে দুই মাদক বিক্রেতা আটক

অভয়নগর প্রতিনিধি: অভয়নগরে এপিবিএন পুলিশের অভিযানে ৫শ’ গ্রাম গাঁজা ও এক বোতল ফেনসিডিল ও...

জীবননগরের ২৫ দিনেও সন্ধান মেলেনি মানসিক প্রতিবন্ধী জসিমের

জীবননগর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার প্রতাপপুর গ্রামের মাননিক প্রতিবন্ধি জসিম উদ্দিন (৩৭) দীর্ঘ ২৬...

দ্রুত এগোচ্ছে যশোর-ঢাকা রেলপথ নির্মাণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: কোটি কোটি বাঙালির স্বপ্ন বাস্তবে ধরা দিয়ে গত ২৫ জুন ঘটা করে...

রাতভর অভিযানে ডাকাত চক্রের ১০ সদস্য গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক :  রাতভর অভিযান চালিয়ে যশোরের পুলিশ ডাকাত চক্রের ১০ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে। এসময়...

তাঁর প্রতিদিনের আয় বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৩৭ লাখ টাকা

বিনোদন ডেস্ক: এই সময়ের আলোচিত সুপারমডেল কারা ডেলেভিন। মডেলিংয়ের সঙ্গে অভিনয়টাও ভালো পারেন। আলোচিত...

বিশ্বকাপের স্বপ্ন রক্ষায় আজ মাঠে নামছে আর্জেন্টিনা, হারলে বাদ

ক্রীড়া ডেস্ক : কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেনিং গ্রাউন্ড থ্রি-তে সোমবার সন্ধ্যায় অনুশীলন শুরু হওয়ার ঠিক আগে...