Sunday, July 3, 2022

মণিরামপুরে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হলে পাল্টে যেতে পারে ভোটের হিসাব

জেমস রহিম রানা : রোববার ২৮ নভেম্বর যশোরের মণিরামপুরের ১৬টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। ৮টি ইউনিয়নে বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় তৃতীয় ধাপের এই নির্বাচন হতে পারে ত্রি-মুখি লড়াই। বিদ্রোহী এসব প্রার্থীরা আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীদের দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছেন।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পোস্টার ও ব্যানারে ছেয়ে গেছে অলিগলি। চলছে একে অন্যকে টপকে জয় ছিনিয়ে আনার প্রতিযোগিতা। ভোটাররাও করছেন চুলচেরা হিসাব নিকাশ। ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে প্রার্থীদের সব ধরনের প্রচার প্রচারণাও। তারপরও প্রার্থী ও তাদের কর্মী-সমর্থকদের ঘুম খাওয়া বন্ধের উপক্রম।

যশোরের তিন উপজেলায় এদিন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এরমধ্যে মণিরামপুর উপজেলার রয়েছে ১৬ টি ইউনিয়নের ভোট। তবে এর মধ্যে একটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান নির্বাচন হচ্ছে না। শ্যামকুড় ইউনিয়ন থেকে ইঞ্জিনিয়ার আলমগীর হোসেন বিনা প্রতিন্দন্দ্বীতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

ছয়টি ইউনিয়নে বিএনপি জামায়াতের স্বতন্ত্র প্রার্থীরা রয়েছেন। যারা বিভিন্ন মেয়াদে আগে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন। ভোটারদের অনেকের ধারণা নির্বাচনের পরিবেশ সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হলে পাল্টে যেতে পারে এ উপজেলা ভোটের হিসাব।

উপজেলার রোহিতা ইউনিয়নে বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আবু আনছার। এ নিয়ে দ্বিতীয় মেয়াদে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন। গেল নির্বাচনে নৌকা পেলেও এবার দল তাকে বাদ দিয়ে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাফিজ উদ্দিনকে মনোনয়ন দিয়েছে। মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র ভোট করছেন আবু আনছার। জয়ের ব্যাপারে তিনিও আশাবাদী। এদিকে এই ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান। বিএনপির ভোটাররা মাঠে উঠতে পারলে তিনিও ফ্যাক্টর হতে পারেন।

কাশিমনগর ইউনিয়নে নৌকার শক্ত বিদ্রোহী না থাকলেও বিএনপি জামায়াতের শক্ত প্রতিন্দন্দ্বী সাবেক দুই চেয়ারম্যান এয়াকুব আলী ও মিজানুর রহমান রয়েছেন। এই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে পাঁচজন প্রার্থী প্রতিন্দন্দ্বীতা করছেন। আওয়ামী লীগের প্রার্থী তৌহিদুর রহমান, স্বতন্ত্র প্রার্থী খোরশেদ আলম, মিজানুর রহমান, আশরাফুল আলম ও ইয়াকুব আলী।

ভোজগাতী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে চার প্রার্থী। আওয়ামী লীগের প্রার্থী আসমাতুন্নাহার, স্বতন্ত্র প্রার্থী বতর্মান চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, শহিদুল ইসলাম ও আসাদুজ্জামান। এখানে শক্ত বিদ্রোহী রয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক।

ঢাকুরিয়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী চারজন। বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের প্রার্থী এরশাদ আলী সরদার, স্বতন্ত্র প্রার্থী আইয়ুব আলী গাজী, মোশাররফ হোসেন ও হাফিজুর রহমান। এই ইউপিতে নৌকার প্রার্থী বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হবেন এমনটিই মনে করছেন ভোটাররা।

হরিদাসকাটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে রয়েছে পাঁচজন। তারা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী বিপদ ভঞ্জন পাড়ে, আলমগীর কবির, নিছার আলী, নবীরুজ্জামান আজাদ ও স্বপন সরকার।
মণিরামপুর সদর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিন্দদ্বীতা করেছেন পাঁচজন। আওয়ামী লীগের প্রার্থী এয়াকুব আলী, স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান নিস্তার ফারুক, আহসান হাবিব লিটন, মনিরুজ্জামান মিল্টন ও সাহেব আলী।

উপজেলার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মণিরামপুর সদর ইউনিয়নে নৌকার বিদ্রোাহী না থাকলেও স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন টানা দু’বারের চেয়ারম্যান থানা যুবদলের সম্পাদক নিস্তার ফারুক। এছাড়া এ ইউনিয়নে জামায়াতের শক্ত প্রার্থী আহসান হাবিব লিটন রয়েছেন।

খেদাপাড়া ইউনিয়নে বিদ্রোহী বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল হককে ফ্যাক্ট মনে করছেন অধিকাংশ ভোটার। প্রতিটি মোড়ে চায়ের আড্ডায় আলোচিত তিনি। এছাড়া রয়েছেন বিএনপির শক্ত স্বতন্ত্র প্রার্থী শামছুজ্জামান শান্ত। সুষ্ঠু পরিবেশ পেলে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী তিনিও। এই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ছয়জন। এরা হচ্ছেন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী আব্দুল আলিম জিন্নাহ, স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান এসএম আব্দুল হক, শামসুজ্জামান শান্ত, আজিবার রহমান, মাহাবুবুর রহমান ও মিজানুর রহমান।

ঝাঁপা ইউনিয়নে নৌকার শক্ত প্রতিন্দন্দ্বী হলেন বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক স ম আলাউদ্দিন ও সিরাজুল ইসলাম। প্রকাশ্যে না হলেও গোপনে তাঁদের ব্যাপক জনসমর্থন রয়েছে। এই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আছেন পাঁচজন । এরা হচ্ছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী শামসুল হক মন্টু, স্বতন্ত্র প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম, রুহুল কুদ্দুস, সম আলাউদ্দীন ও হুমায়ুন কবির।

মশ্মিমনগরে শক্ত বিদ্রোহী না থাকলেও রয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আব্দুল গফুর। তিনি বিএনপির রাজনীতির সাথে যুক্ত। এই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মোট পাঁচজন রয়েছেন। এরা হচ্ছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল গফুর, সেলিম জাহাঙ্গীর, ইউনুচ আলী এবং ইয়ামিন হোসেন।

চালুয়াহাটি ইউনিয়নে সবচেয়ে আলোচিত প্রার্থী নৌকার বিদ্রোহী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ। আসন্ন নির্বাচনে নৌকা পাওয়া আবুল ইসলাম গেল নির্বাচনেও নৌকা পেয়েছিলেন। তখন তাঁকে হারিয়ে জয়ী হন আব্দুল হামিদ। এবারও তেমনটি ঘটতে যাচ্ছে বলে ধারণা ভোটারদের। চালুয়াহাটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মোট পাঁচজন প্রার্থী রয়েছেন । এরা হচ্ছেন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী আবুল ইসলাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ সরদার, সাবেক চেয়ারম্যান বজলুর রহমান, রবিউল ইসলাম ও মেহেদী হাসান।
খাঁনপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন সাতজন প্রার্থী। এরা হচ্ছেন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ মিলন, স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম, আব্দুল মান্নান, মাহাবুবুর রহমান, রবিউল ইসলাম, অ্যাডভোকেট মুজিুবুর রহমান ও লাভলু আক্তার।

কুলটিয়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে সাতজন নির্বাচন করছেন। এরা হচ্ছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান শেখর চন্দ্র রায়, স্বতন্ত্র প্রার্থী আদিত্য কুমার, তৌহিদ মিজানুর রহমান, প্রভাষ ঘোষ, নাজমুল হক লিটন, মনোহর মন্ডল ও জাহিদ হাসান।

নেহালপুরে ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী এমএম হুসাইন ফারুক, স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান নাজমুস সাহাদাত, মনোয়ার হোসেন ও আনিসুল ইসলাম। মনোহরপুর ইউনিয়নে নৌকার বিদ্রোহীরা মনোনয়ন তুলে নিলেও থেকে গেছেন শক্তিশালী স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান আক্তার ফারুক মিন্টু। ভোটররা মাঠে উঠতে পারলে বর্তমান চেয়ারম্যান নৌকার প্রার্থী মশিয়ূর রহমানের সাথে জমতে পারে মিন্টুর লড়াই।

১৫২ টি ভোট কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ হবে। ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৯৫ হাজার ৩৫ জন। ৮৮০৫ টি কক্ষে ভোট গ্রহণ হবে। যশোরের সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার হুমায়ূন কবির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ

রাজপথে নেই যশোর জাতীয় পার্টি 

এক বছর আগে হয়েছে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি দিনে দলীয় কার্যালয় থাকে বন্ধ, মাঝে মধ্যে সন্ধ্যায়...

যশোরে দৈনিক ২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ ঘাটতি, লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ জনগণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :  ঋতুচক্রে এখন মধ্য আষাঢ়। কিন্তু ভ্যাপসা গরম কাটছে না। গরমে মানুষ অতিষ্ঠ...

ধর্ম-কর্মের খোঁজ নেই মসজিদ নিয়ে মারামারি

হাদিস শরিফে মসজিদকে সর্বোত্তম স্থান হিসেবে উল্লখ করা হয়েছে। এখানে মহান আল্লাহর এবাদতে যেভাবে...

সোনালি আঁশে সুদিনের স্বপ্ন দেখছেন নড়াইলের চাষিরা

নড়াইল প্রতিনিধি বোরো ধানের পর নড়াইলে পাট চাষে অর্থনৈতিক সচ্ছলতার স্বপ্ন দেখছেন কৃষাণ-কৃষাণীরা। উৎপাদন ভালো...

শিক্ষক হত্যা ও লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে বাকবিশিস যশোরের মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক :  নড়াইলে কলেজ অধ্যক্ষের গলায় জুতার মালা পরানো ও সাভারে শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যার...

বিল হরিণায় বিসিক-২ বাস্তবায়ন দাবিতে রাজপথে নেমেছেন এলাকাবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোর সদর উপজেলার রামনগর ইউনিয়নের বিল হরিণায় প্রস্তাবিত লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্প পার্ক...